২০ জানুয়ারি ২০২১
`

ঈশ্বরগঞ্জে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু পারাপারে আহত হচ্ছে পথচারীরা


ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার জাটিয়া ও সরিষা ইউনিয়নের সংযোগস্থানে কাঁচামাটিয়া নদীর ওপর একটি ঝুঁকিপূর্ণ সেতু পারাপারের সময় প্রায়ই আহত হচ্ছে পথচারীরা। দীর্ঘ দিন ধরে এমন অবস্থা চললেও এলাকাবাসীর দুঃখ দেখার কেউ নেই বলে তাদের অভিযোগ।

সরেজমিন গিয়ে দেখে যায়, অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে ওই সেতু দিয়ে চলাচল করছে সাধারণ মানুষ। অন্ধকার রাতে সেতুটির র‌্যালিং ঘেষে পারাপার করতে গিয়ে কনক্রিটের ভেতর থেকে বেরিয়ে থাকা রডে আঘাতপ্রাপ্ত হচ্ছেন পথচারীরা। এতে করে বড় ধরণের দুর্ঘটনার শঙ্কাও প্রকাশ করেছে এলাকার মানুষ।

স্থানীয় বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম জানান, সেতুটি ধীরে ধীরে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। র‌্যালিংয়ের সিমেন্ট বালির আস্তর খসে পড়েছে। কিন্তু কেউ দেখছে না। দ্রুত সেতুটি সংস্কার করার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

জানা যায়, নদীর জাটিয়া অংশে সুটিয়া বাজার ও সরিষা অংশে কুর্শিপাড়া বাজার। নদীর দুই পাড়ের বিচ্ছিন্ন মানুষের জীবন যাত্রার মান বৃদ্ধি করতে ১৯৯৭-৯৮ সালের দিকে একটি সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেন তৎকালীন সংসদ সদস্য মো: আবদুছ ছাত্তার। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) তত্ত্বাবধানে সেতুটি বাস্তবায়িত হয়। তৎকালীন সময়ে প্রায় ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে সেতুটির নির্মাণ কাজ করা হয়। যা নির্মাণের ফলে দুটি ইউনিয়নের মানুষের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি ও জীবন যাত্রার মান পরিবর্তন শুরু হয়। মানুষের অবস্থার অনেক পরিবর্তনও ঘটিয়েছে ওই সেতুর কল্যাণে। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে ধীরে ধীরে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। খসে পড়তে শুরু করছে কনক্রিটের প্রলেপ। সেতুটির র‌্যালিংয়ের সিংহ ভাগের কনক্রিট ইতোমধ্যে খসে পড়েছে। রড বেড়িয়ে মারাত্মকভাবে ঝুঁকিতে রয়েছে। ফলে ক্রমশ ঝুঁকি বাড়ছে সেতুটিতে চলাচলকারী দুই পাড়ের মানুষের।

সরিষা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূঁইয়া জানান, সেতুটি নিয়ে একাধিকবার উপজেলা প্রশাসন ও প্রকৌশলীর সাথে কথা হয়েছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেতুটির সংস্কার কাজ হবে।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী তৌহিদ আহমেদ বলেন, সেতুটি আরো বড় করে করার জন্যে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আপাতত সেতুটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হবে।



আরো সংবাদ