৩০ মে ২০২০

বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ায় হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

জামালপুরে অটোরিকশা চালক সোহাগ (১৮) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ময়না তদন্তের জন্য লাশ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার সকালে সদর উপজেলার মেষ্টা ইউনিয়নের দোয়ানীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সোহাগ একই গ্রামের মৃত নূরুল ইসলামের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, একই গ্রামের রফিকুল ইসলাম শ্যামলের কন্যা সাত দিন আগে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে আসে। কয়েকদিন আগে সোহাগ ওই মেয়ের চাচা উজ্জলকে জানায় যে, সে তার ভাতিজিকে বিয়ে করতে চায়। এ বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও সোহাগের পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়।

নিহত সোহাগের মা কাঞ্চন বেগমের অভিযোগ, শ্যামলের মেয়েকে তার ছেলে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ায় ওই মেয়ের পরিবারের লোকজন তার ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ জামগাছে ঝুলিয়ে রাখে। অন্যদিকে এমন অভিযোগ অস্বীকার করেন ওই মেয়ের পরিবারের সদস্যরা।

এব্যাপারে জামালপুর নারায়ণপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ লতিফ মিয়া সাংবাদিকদের জানান, খবর পেয়ে সকালে র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।


আরো সংবাদ