০৯ মার্চ ২০২১
`
সাবেক স্বামীকে এসিড নিক্ষেপের মামলা

সঙ্গীতশিল্পী মিলার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা, বাসায় পুলিশের অভিযান

সংগীতশিল্পী মিলা - ফাইল ছবি

আলোচিত সংগীতশিল্পী মিলাকে খুঁজছে পুলিশ। সাবেক স্বামী বৈমানিক পারভেজ সানজারির ওপর এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় তার বিরুদ্ধে সম্প্রতি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। ইতোমধ্যে তাকে গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে পল্লবী থানা পুলিশ। তবে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পল্লবী থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী জানান, মিলার বিরুদ্ধে একটি গ্রেফতারি পরোয়ানা থানায় এসেছে। আমাদের দুটি ইউনিট এই গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল করার জন্য অভিযান চালাচ্ছে। এর মধ্যে মিলার বাসাসহ একাধিক স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে। তবে এখনো তাকে পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১২ মে সংগীতশিল্পী মিলা ও পাইলট পারভেজ সানজারি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু বিয়ের কিছু দিনের মধ্যেই তাদের সম্পর্কে ফাটল ধরে। দাম্পত্য কলহের জেরে ওই বছরই ৫ অক্টোবর স্বামী সানজারির বিরুদ্ধে যৌতুক আইনে একটি মামলা দায়ের করেন মিলা। ওই মামলায় সানজারি জামিন পাওয়ার পর ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি মিলাকে তালাক দেন।

এঘটনার পর ২০১৯ সালের ২ জুন পারভেজ সানজারি দুর্বৃত্তদের ছোড়া অ্যাসিডে দগ্ধ হন। ওই ঘটনায় সানজারির বাবা এস এম নাসির উদ্দিন রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মিলা ও তার এক সহযোগীকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ এবং এসিড ট্রাইব্যুনালের জজ শওকত আলী চৌধুরী গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

রাজধানীর পল্লবী থানা পুলিশকে গ্রেফতারি পরোয়ানা পাঠানো হয়েছে। এরপর থেকে মিলা গা-ঢাকা দিয়েছেন। পুলিশ মিলার খোঁজে পল্লবীর বাসায় অভিযান চালিয়েছে। তবে তাকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে পুলিশ জানায়। তার পরিবার থেকে পুলিশকে জানানো হয়েছে, মিলা ওই বাসায় থাকেন না। পরিবারের সাথে মাঝে মাঝে ফোনে যোগাযোগ হয়।

মামলার বাদি সানজারির বাবা এস এম নাসির উদ্দিন অভিযোগ করেন বলেন, আমরা শুনেছি মিলা ঢাকাতেই আছেন। বাসায় তার নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে। এমনকি সে মিডিয়ার লোকজনের সাথেও যোগাযোগ রাখছে। অথচ পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, সংগীতশিল্পী মিলার প্রথম বিয়ে ২০০২ সালের ৩১ জুলাই, আবির আহম্মেদ নামে এক যুবকের সাথে। ওই বিয়ে গোপন করে বৈমানিক সানজারিকে বিয়ে করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।



আরো সংবাদ