০১ অক্টোবর ২০২৩, ১৬ আশ্বিন ১৪৩০, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`
ব্যয় হবে ১৫০০ কোটি টাকা

রাঙ্গামাটিতে বাপাউবোর দৃষ্টিনন্দন টেকসই উন্নয়ন প্রকল্প

-


গহিন অরণ্যে ঘেরা পাহাড়ি ছড়া আর নদ-নদী বেষ্টিত অপরূপ সাজে সজ্জিত দৃষ্টিনন্দন চট্টগ্রাম অঞ্চলের অন্যতম জেলা রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা। গহিন অরণ্য পাহাড় ও নদীবেষ্টিত অপরূপ সাজে সজ্জিত এই জেলার পরতে পরতে রয়েছে ভ্রমণপিপাসুদের আকর্ষণীয় ও দর্শনীয় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন স্পট। সে কারণে দেশী-বিদেশী ভ্রমণপিপাসুদের ঢল নামে এই পার্বত্য জেলায়।
দেশের অন্যতম পর্যটন জেলা রাঙ্গামাটির আকর্ষণীয় গহিন অরণ্য বেষ্টিত পাহাড়ি সৌন্দর্য ছাড়াও খরস্রোতা নদী-খাল বর্ষায় ফুলে ফেঁপে উঠলেও শুষ্ক মৌসুমে অধিকাংশ নদী ও খালের পানি শুকিয়ে চর জেগে উঠে। বর্ষা মৌসুমে খরস্রোতা এসব নদী ও খাল পাহাড়ি ছড়ার রুদ্ররূপের কারণে ভাঙন দেখা দেয়। তেমনি শুষ্ক মৌসুমে এসব ছড়া-নদী-খাল শুকিয়ে চৌচির হয়ে পরে। এতে পাহাড়ি নৃ-গোষ্ঠীসহ হাজার হাজার বসবাসকারীর দুর্ভোগ চরমে ওঠে। বন্ধ হয়ে পরে নৌ চলাচল। সে কারণে শুষ্ক মৌসুমে উৎপাদিত ফসল পরিবহনসহ স্বাস্থ্য ও শিক্ষা ব্যবস্থা ব্যাহত হয়।


এ কারণেই মূলত বাপাউবো গ্রহণ করেছে দৃষ্টিনন্দন টেকসই উন্নয়ন প্রকল্প। আর এ প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে প্রায় এক হাজার ৫০০ কোটি টাকা। গতকাল বিকালে দৈনিক নয়া দিগন্তকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড চট্টগ্রাম অঞ্চলের রাঙ্গামাটি ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী তয়ন কুমার ত্রিপুরা।
তিনি বলেন, এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে পর্যটনশিল্প নৌ-যোগাযোগ, কৃষি, মৎস্য ও বিদ্যুৎ উৎপাদনেও বড় ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা করছেন তিনি। তিনি বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে জেলার নানিয়ার চর, বরকল, বাঘাইছড়ি, লংগদু, কাউখালী, কাপ্তাই, রাজস্থলী, রাঙামাটি সদর ও বিলাইছড়ি উপজেলার কয়েক লাখ মানুষ উপকৃত হবে। প্রকল্পটির মেয়াদ ধরা হয় ২০২৩ সালের ১ জুন থেকে ২০২৫ সালের ৩০ জুন।
প্রকল্পে কাপ্তাই লেকের এসপি বাংলো থেকে ডিসি বাংলো, ডিসি বাংলো থেকে পর্যটন ঝুলন্ত ব্রিজ পর্যন্ত লেকের উভয় তীরে প্রায় ১৩ কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ। কর্ণফুলী নদীর উভয় তীরে ৮ দশমিক ১৫৫ কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ, বাঘাইছড়িতে কাচালং নদীর উভয় তীরে চার দশমিক ১০০ কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ, লংগদুতে মাইনী নদীর উভয় তীরে এক কিলোমিটার প্রতিরক্ষা, বিলাইছড়িতে রাইখ্যং নদীর উভয় তীরে এক কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ, কাউখালীতে ইছামতি নদীর উভয় তীরে ০.৩৩০ কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হবে। এ ছাড়াও রাজস্থলী, কাউখালী, কাপ্তাই, রাঙামাটি সদরের কাপ্তাই খাল, মনাই খাল, ইছামতি খাল, বগাছড়া খাল, ঘাগড়া খাল এবং বাঙালহালিয়া খালের উভয় তীরে তিন দশমিক ৫০০ কিলোমিটার প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হবে।


এ ছাড়া পানি প্রবাহ বাড়াতে কাচালং, রাইখিয়ং, শিলক, কর্ণফুলী ও শাখা খাল খনন করা হবে। কাচালং নদীর বাঘাইছড়ি থেকে মাইনী মুখ পর্যন্ত ৪৬ দশমিক ৯০০ কিলোমিটার, রাইখিয়ং নদীর টেংরাছড়ি থেকে বিলাইছড়ি পর্যন্ত ১০ দশমিক ২৫০ কিলোমিটার, শিলক নদীর বাঘাইছড়ি থেকে মাইনী মুখ পর্যন্ত ৭ দশমিক ২৫০ কিলোমিটার এবং কর্ণফুলী সংযুক্ত নদী-খাল, কাপ্তাই লেকের চর অপসারণে ১০ কিলোমিটার ড্রেজিং করা হবে।
এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে পর্যটনশিল্পের যেমন আরো বিকাশ ঘটবে তেমনি কৃষিজপণ্যের বাজারজাত, নৌ-যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন ও কাপ্তাই হ্রদের পানি ধারণক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।
ওই প্রকল্পের মাধ্যমে কাপ্তাই হ্রদে রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণ ওয়াকওয়ে করে পর্যটনবান্ধব করা হবে। হ্রদের সৌন্দর্যবর্ধনে লেকের উভয় তীরে প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।
পানি উন্নয়ন বোর্ড রাঙ্গামাটি ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী বাবু তয়ন কুমার ত্রিপুরা বলেন পুরো প্রকল্পের ডিপিপি প্রস্তুত করা হয়েছে, চলতি মাসের শেষ দিকে প্রকল্প ডিপিপি সদর দফতরের দাখিল করার প্রত্যাশা করছেন তিনি।


আরো সংবাদ



premium cement
বিশ্বকাপে নজর কাড়তে পারেন এই ৫ তরুণ জামালপুরের বকশীগঞ্জে ইজিবাইকের ধাক্কায় স্কুলশিক্ষিকা নিহত মহাদেবপুরে পারিবারিক কলহে এনজিও পরিচালকের আত্মহত্যা ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের ২ অক্টোরের পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর গাজীপুরে অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যা সন্তানের নামকরণ নিয়ে বাবা-মায়ের তীব্র বিরোধ, ৩ বছর পর সিদ্ধান্ত এলো আদালত থেকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় এ সিদ্ধান্ত : খালেদা জিয়ার আইনজীবী নতুন নেতৃত্বে ইবির জিয়া পরিষদ ডিমের এসব পদ আর ভালো লাগছে না, তাহলে পেটপুরে খেতে তৈরি করুন শাকসুকা পাটগ্রামে গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতনে হত্যার অভিযোগ শেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে ৯ জনের লিভারপুলকে হারালো টটেনহ্যাম

সকল