০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`
খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় ত্রাণ কমিটি গঠন

সিলেটের বন্যাদুর্গতদের সাহায্যে সবাইকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে : মাওলানা ইসহাক

-

খেলাফত মজলিসের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, ভারত থেকে আসা ঢলের পানিতে সিলেট নগরীসহ সিলেট-সুনামগঞ্জের অধিকাংশ এলাকা বন্যাপ্লাবিত। এখনো হু-হু করে বাড়ছে বানের পানি। বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষ অবর্ণনীয় দুর্দশার মধ্যে দিনাতিপাত করছে। সিলেটের বন্যাদুর্গতদের সাহায্যে সবাইকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। বন্যাকবলিত সিলেট-সুনামগঞ্জকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে ত্রাণ তৎপরতা শুরু করতে হবে। জরুরি ভিত্তিতে পর্যাপ্ত সরকারি ত্রাণের ব্যবস্থা করতে হবে। একই সাথে সমাজের সামর্থ্যবানদের ত্রাণ তৎপরতায় ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।
গতকাল শনিবার সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনÑ নায়েবে আমির মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল হালিম, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী, প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, অধ্যাপক মাওলানা আজীজুল হক, হাজী নূর হোসেন, খন্দকার শাহাব উদ্দিন আহমদ, মাওলানা আবদুল হক আমিনী, মাওলানা সাইফউদ্দিন আহমদ খন্দকার প্রমুখ।
বৈঠকে সিলেটের বন্যাদুর্গত এলাকায় ত্রাণ তৎপরতার জন্য সংগঠনের যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইনকে আহ্বায়ক ও মুহাম্মদ মুনতাসির আলীকে সদস্যসচিব করে সাত সদস্যবিশিষ্ট কেন্দ্রীয় ত্রাণ কমিটি গঠন করা হয় এবং খেলাফত মজলিসের সর্বস্তরের নেতাকর্মীকে সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষের সাহায্যে ত্রাণ তৎপরতার ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ


premium cement