০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`
ঢাবির বঙ্গবন্ধু হল

প্রোগ্রামে না যাওয়ায় ১৫ জনকে বের করে দেয়া হলো

-

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ছাত্রলীগের কর্মসূচিতে না যাওয়ায় ১৫ শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে।
গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টায় প্রোগ্রামে না যাওয়ায় তৃতীয় বর্ষের ১৫ শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দেয় মাহবুবের অনুসারী চতুর্থ বর্ষের কয়েক ছাত্রলীগ নেতা।
সূত্র জানায়, তারা ১৭ তারিখের প্রোগ্রামে অনুপস্থিত না থাকায় তাদের বের করা হয়। তাদের বের করে দেয়ার মূল হোতা হিসেবে কাজ করে চতুর্থ বর্ষের আলি আজম ও আরিফ রানা সজল। আলি আজম ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের এবং আরিফ রানা সজল বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী। হল থেকে বের করে দেয়ার পর তারা (ভুক্তভোগীরা) হল ছাত্রলীগের সেক্রেটারী মাহবুবুর রহমানের কাছে গিয়েও কোনো লাভ হয়নি। তারা পরীক্ষার কথা বললেও তিনি কোনো সাহায্য করেননি। বরং বলেছেন, তোরা প্রোগ্রাম গেস্টরুম করস না, তোদের কিসের সিট। এই বলে তিনি তাদের রুম থেকে বের করে দেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তৃতীয় বর্ষের একজন শিক্ষার্থী জানান, পরীক্ষা থাকার কারণে প্রোগ্রামে যেতে পারিনি। তাই রাতে গেস্টরুমে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। এরপর হল থেকে বের করে দেয়া হয়। সারা রাত আমরা কেউ বাইরে, কেউ মসজিদে কাটাই। আমরা সেক্রেটারির কাছে গিয়েও লাভ হয়নি। তিনি আমাদের কোনো পাত্তাই দিলেন না।
অভিযুক্ত আরিফ হাসান সজল বলেন, আমাদের হলে এ রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি। যদি কেউ এসব বলে থাকে তাহলে সেগুলো বানিয়ে বলেছে। সবাই হলেই আছে আর কাউকে বের করে দেয়াও হয়নি। আলি আজম বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমি কাউকে হল থেকে বের করিনি আর কাউকে উঠাইওনি। এসব মিথ্যা।
এ ব্যাপারে হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান বলেন, আমার গ্রুপে এ রকমের ঘটনা ঘটেনি। কাউকে বের করে দেয়াও হয়নি।
শিক্ষার্থীরা তার কাছে গিয়েছিল কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার কাছে কেউ আসেনি।


আরো সংবাদ


premium cement