০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`
৬ দফা দাবিতে মানববন্ধন

অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বললেই বরখাস্ত করার অভিযোগ ওয়াসা কর্মচারীদের

-

ছয় দফা দাবিতে গতকাল রাজধানীর কারোানবাজারের প্রধান অফিসের সামনে মানববন্ধন করেছেন ওয়াসার কর্মচারীরা। ঢাকা ওয়াসা কর্মচারী সমিতি এবং ঢাকা ওয়াসা কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য পরিষদের ব্যানারে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দিন সরকার বলেন, যারা দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন, তাদের বরখাস্ত-বহিষ্কার করা হচ্ছে। কিন্তু যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা বহাল তবিয়তে আছেন। কর্মচারী সমিতির প্রায় ২০০ কোটি টাকার সম্পদ ওয়াসা কর্তৃপক্ষ দখলে রেখেছে। সমিতিকে এ সম্পদ বুঝিয়ে দেয়া হচ্ছে না। এ সময় কর্মচারীরা আরো বলেন, ওয়াসায় আমাদের চাকরির কোনো নিরাপত্তা নেই। এখানে অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বললেই বরখাস্ত করা হয়। এ অন্যায় মেনে নেয়া যায় না। যতক্ষণ পর্যন্ত না ওয়াসা ম্যানেজমেন্ট আমাদের দাবি মেনে না নেয়, আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।
ওয়াসা কর্মচারীদের ছয় দফা দাবি হলো- ১. জব সিকিউরিটি, পেনশন সুবিধাসহ বিদ্যমান সব সুযোগ-সুবিধা বহাল রাখতে হবে। কোনো অবস্থাতেই অর্গানোগ্রাম পরিবর্তনের নামে একজন কর্মীকেও চাকরিচ্যুত করা যাবে না। ২. ঢাকা শহরের আয়তন ও জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সামঞ্জস্য রেখে ঢাকা ওয়াসার সাংগঠনিক কাঠামো সম্প্রসারণ এবং যুগোপযোগী করার মাধ্যমে কর্মীদের কর্মচাঞ্চল্য বাড়াতে হবে। ৩. প্রতিষ্ঠানের প্রতি স্বত্বাধিকার ও দায়বদ্ধতা না থাকায় আউটসোর্সিং ও চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বন্ধ করতে হবে। শূন্যপদে নিয়মিত কর্মী নিয়োগ দিয়ে ওয়াসার কর্মশক্তি ও সক্ষমতা বাড়াতে হবে। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে কর্মরত মাস্টাররোল কর্মীদের নিয়মিত করতে হবে। ৪. জ্যেষ্ঠতা এবং পদোন্নতির ক্ষেত্রে ঢাকা ওয়াসার বিধি-বিধান যথাযথ অনুসরণ করতে হবে। বিশেষ বিশেষ দুর্নীতিপ্রবণ ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগের শিথিলতা প্রত্যাহার করে আইনের প্রয়োগ সবার জন্য সমানভাবে করতে হবে। আইনের আশ্রয় লাভের মৌলিক অধিকার সবার জন্য নিশ্চিত করতে হবে। ৫. কর্মচারীদের বদলি ও পদায়ন তাদের স্বার্থের অনুকূলে করতে হবে। কর্মরত অবস্থায় কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী মারা গেলে সরকারি বিধানমতে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ঢাকা ওয়াসা কর্তৃক জোরজবরদস্তিভাবে দখলকৃত ঢাকা ওয়াসা কর্মচারী বহুমুখী সমবায় সমিতির ২০০ কোটি টাকার সম্পদ ও অর্থ সমিতির নির্বাচিত কমিটিকে বুঝিয়ে দিতে হবে এবং ৬. আইনসঙ্গত ও যৌক্তিক কোনো কারণ ছাড়াই সময়িক বরখাস্ত এবং ওএসডি হিসেবে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে আনা মিথ্যা অভিযোগ অবিলম্বে প্রত্যাহার করে তাদের পদায়ন করতে হবে।
কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে সমিতির সভাপতি আতাউল করিম, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম, ঐক্য পরিষদের আহবায়ক মো. মোজাম্মেল হক, সদস্য সচিব আজিজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ


premium cement