২২ মে ২০২২
`

মালদ্বীপের কারাগারে প্রবাসী শ্রমিকদের বস্ত্র ও চিকিৎসাসেবা দিলো বাংলাদেশ দূতাবাস

মালদ্বীপের কারাগারে প্রবাসী বাংলাদেশীর জন্য চিকিৎসাসামগ্রী প্রদান: নয়া দিগন্ত -

চলমান করোনা মহামারীতে মালদ্বীপের সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় মানুষ যেমন কষ্টে আছে, এর চেয়েও বেশি কষ্টে আছে গৃহ, পরিবার আর স্বজন ছেড়ে আশা প্রবাসী। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিসংখ্যান অনুযায়ী মালদ্বীপে প্রায় এক লাখেরও বেশি বাংলাদেশের অভিবাসী শ্রমিক আছে। প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি এমন আছেন, যাদের কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। অনেকেই আছেন মেয়াদোত্তীর্ণ ভিসা,অবৈধ অবস্থানপত্র কিংবা অনুমতিপত্র না থাকার কারণে অবৈধ অভিবাসী আইনের বেড়াজালে পরেই বিভিন্ন কারাগারে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে, আবার কেউবা আছে বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িয়ে। এই দুর্যোগ মহামারীতে কারাগারে শ্রমিকদের জন্য কিছু মৌলিক চাহিদা ও সহায়তার কিছুটার আশ্বাস মিললেও, নানান দুঃখ-দুর্দশা, হতাশা, লাঞ্ছনা-বঞ্চনা আর হয়রানিতে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে কারাগারে থাকা প্রবাসী শ্রমিকদের জীবন।এর বাইরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে মালদ্বীপের কারাগারে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে আছে হাজারো বাংলাদেশী বন্দী।
গতকাল ছুটির দিনে দ্বীপরাষ্ট্রের মাফুশি কারাগারে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশী বন্দীদের জন্য মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষ থেকে পরিধেয় বস্ত্র ও চিকিৎসার জিনিসপত্র মালদ্বীপের কারেকশনাল সার্ভিসের কাছে হস্তান্তর করেন মিশনের প্রথম সচিব মো: সোহেল পারভেজ। এ সময় হাইকমিশনের ওয়েলফেয়ার অ্যাসিসটেন্ট ও কারেকশনাল সার্ভিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রথম সচিব মালদ্বীপের কারাগারে প্রবাসী বাংলাদেশী বন্দীদের বিষয়ে খোঁজ নেন এবং করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বন্দীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের জন্য কারাকর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান।


আরো সংবাদ


premium cement