১৯ মে ২০২২, ০৫ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`

কাফরুলে বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই বহুতল ভবন নির্মাণ

রাজউকের ৩ দফা নোটিশেও নেই ভ্রুক্ষেপ
-

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করে বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই উত্তর কাফরুলে ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। রাজউক থেকে একাধারে তিনটি নোটিশ পাঠানো হলেও বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ নির্মাণকাজ। শুধু তাই নয়, তাদের কাজের কারণে প্রতিবেশীরা চরম ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কোনো ধরনের ভ্রুক্ষেপ করছেন নির্মাণকারী কিছু ব্যক্তি। শুধু রাজউকেই নয়, তাদের বিরুদ্ধে থানাও অভিযোগ করা হয়েছে।
রাজউকের নোটিশ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, মোস্তফা কামালসহ কয়েক শিক্ষক উত্তর কাফরুল এলাকার ২৩৯/৫ নম্বরে প্লটে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন। পাশেই আমেনা মোস্তফা নামে এক নারীর একটি ছয়তলা বাড়ি রয়েছে। আমেনা মোস্তফা অভিযোগ করেছেন, নিচ থেকে কিছুটা জায়গা ছেড়ে অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণে ফাউন্ডেশন পিলার তোলা হলেও উপরের দিকে এসে তার ছয়তলা ভবনের ভেতরের দিকে ঢুকিয়ে ব্যালকনি নির্মাণ করা হয়েছে। তার আগে ২৪ ঘণ্টা ডিপটিউবওয়েল পানি সুবিধা দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে পানির ট্যাংকি বসানোর নামে কৌশলে সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলা হয় তারা। এর আগে প্রতারণার মাধ্যমে পানির ট্যাংকি বসানোর কথা বলে পাঁচ লাখ টাকাও লুটে নেয়। এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলে, তারা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। তাই বাধ্য হয়ে তিনি সম্প্রতি কাফরুল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।
এর আগেই রাজউক অবৈধভাবে অ্যাপার্টিমেন্ট নির্মাণের অভিযোগ এনে তিন দফায় কাজ বন্ধের নোটিশ দেয়। এতে কর্ণপাত না করেই তারা চালিয়ে যায় নির্মাণকাজ। সাহেদ নামে অপর একজন বলেন, আমরা অনেক বার তাদের আপস বুঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারা কর্ণপাত করে না। উল্টো আমাদের মেরে ফেলার হুমকি দেয়।
রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রাজউক সার্কেল-৩ মহাখালী জোনের অথরাইজড অফিসার সোহাগ সাংবাদিকদের জানান, নিয়মানুয়ায়ী আমরা পরপর তিনবার নোটিশ করেছি, যেন তারা কাজ বন্ধ রাখেন। তারা তা মানছে না। নিয়মানুযায়ী শিগগিরই ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে নিয়মবহির্ভূতভাবে তৈরি করা অংশ ভেঙে ফেলা হবে বলে জানান তিনি।

 


আরো সংবাদ


premium cement