০৯ ডিসেম্বর ২০২১
`

টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে নাগরিক সমাজের সক্রিয় অংশগ্রহণ অপরিহার্য

বিডিসি-এসওর বার্ষিক সম্মেলনে বক্তারা
-

বাংলাদেশের উন্নয়নকে অধিকতর কার্যকর এবং টেকসই করতে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নাগরিক সমাজ সংগঠনগুলোর সক্রিয় অংশগ্রহণ অপরিহার্য বলে মত প্রকাশ করেছেন। গতকাল বাংলাদেশ এনজিও-সিএসও কো-অর্ডিনেশন প্রসেসের (বিডিসি-এসও প্রসেস) বার্ষিক সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন। স্থানীয় ও জাতীয় প্রায় ৬০০ এনজিও-সিএসওর এই নেটওয়ার্কটি গতকাল থেকে তিন দিনব্যাপী বার্ষিক সম্মেলন শুরু করেছে। সম্মেলনের প্রথম দিন আয়োজিত অধিবেশনের শিরোনাম ছিল, ‘স্থানীয় নাগরিক সমাজ : কেন এবং কিভাবে তৃতীয় একটি খাত হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে পারে?’
অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ এবং পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ। কোস্ট ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন এনজিওবিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কে এম তারিকুল ইসলাম। এতে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা দেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের ডেভেলপমেন্ট ইফেকটিভনেস উইংয়ের উপসচিব আবুল কালাম আজাদ, ইউএনডিপির সুদিপ্ত মুখার্জি এবং ক্রিশ্চিয়ান এইডর মিশেল মৌসুলম্যান। অনুষ্ঠানে নির্ধারিত আলোচক হিসেবে আরো বক্তৃব্য রাখেনÑ এনআরডিএস ও সুপ্রর আবদুল আওয়াল, বিইউপির ফয়জুল্লাহ চৌধুরী, দুর্যোগ ফোরামের নাইম গওহর ওয়াহরা, রূপান্তরের রফিকুল ইসলাম খোকন, উদয়ন বাংলাদেশের শেখ আসাদুজ্জামান, ইমলএলএমএর জেসমিন সুলতানা পারু।
কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ বলেন, উন্নয়ন কিন্তু হয় স্থানীয় পর্যায়ে। স্থানীয় প্রশাসন স্থানীয় সরকারের পাশাপাশি তাই সেই উন্নয়নকে টেকসই করতে স্থানীয় নাগরিক সমাজকে সম্পৃক্ত করতে হবে। স্থানীয় এনজিও-সিএসওগুলো কিন্তু স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতার সাথে কাজ করছেন; কিন্তু এ ক্ষেত্রে আমাদের আরো অনেক কিছু কাজ করতে হবে। শুধু নিজের প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের কথা চিন্তা না করে, সবার মর্যাদাপূর্ণ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।

 


আরো সংবাদ