২৮ জুলাই ২০২১
`

কৃষি ঋণ আদায়ের নামে হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের নিন্দা

-

বাংলাদেশ কৃষক-মজুর সংহতির কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নীলু ও সদস্য সচিব জোনায়েদ সাকি এক যৌথ বিবৃতিতে কৃষি ঋণ আদায়ের নামে কৃষকদের ব্যাংক কর্মকর্তাদের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। বিবৃতিতে তারা বলেন, বরিশালের উজিরপুরে গত ৬ জুন কৃষকরা ঋণ পরিশোধে অক্ষমতা প্রকাশ করে তা মওকুফের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন। তার কিছু দিন যেতে না যেতেই ব্যাংক কর্মকর্তারা আবার কৃষকদের বাড়ি গিয়ে মামলার ভয় দেখাচ্ছেন। অথচ আমরা দেখছি খেলাপি ঋণে ধ্বংসপ্রায় ব্যাংকগুলো। এই খেলাপি ঋণের পরিমাণ এখন এক লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। প্রায় একশত ব্যাংক পরিচালক ঋণের নামে লুট করেছে এক লাখ কোটি টাকার মতো। আর সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশীদের পাচারের অর্থের পরিমাণ পাঁচ হাজার ৫৬৬ কোটি টাকা। দেশের এই সর্বগ্রাসী লুটপাট সম্পর্কে সরকারের অর্থমন্ত্রীসহ সবাই ওয়াকিফহাল। কিন্তু এই অর্থ উদ্ধারের জন্য আত্মসাৎকারীদের বিরুদ্ধে কোনো রকম মামলা বা গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা দেখছি না। অতিসম্প্রতি একটি ব্যবসায়ী গ্রুপের ১৭৩০ কোটি টাকা সুদ মওকুফ করা হয়েছে। সোনালী ব্যাংক থেকে যে আড়াই হাজার কোটি টাকা লুট হয়েছে তা যদি সরকার পুনর্ভরণ করতে পারে তাহলে মাত্র ৫০০ কোটি টাকার জন্য অসহায় গরিব কৃষকের নামে বছরের পর বছর মামলা চলবে এটা কোনো ক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। বিজ্ঞপ্তি।



আরো সংবাদ