১২ মে ২০২১
`

বদরখালীতে পাউবোর জমি ভরাট করে অবৈধ দোকান নির্মাণ

-

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের বাজারপাড়ার কাছে অবস্থিত বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ১১ নং সøুইচ গেটের পতিত জলাশয় ভরাট করে একে একে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে যাচ্ছে একটি চক্র। ভরাট করার পর এসব জমি মোটা অংকের বিনিময়ে বিক্রিও করে দিচ্ছে চক্রটি। এর ফলে জোয়ারের পানি আগমন-নির্গমনের পথ একেবারেই সঙ্কুচিত হয়ে পানি চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বৃষ্টি কিংবা বন্যার পানি নির্গমনের একমাত্র পথটি সরু হয়ে যাওয়ার কারণে আসন্ন বর্ষা মৌসুমে পুরো এলাকা পানিতে ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। প্রকাশ্যে সরকারি জলাশয় ভরাট ও বিক্রি অব্যাহত থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে নিশ্চুপ রয়েছে। বিশেষ করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্লিপ্ততার সুযোগে চক্রটি বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। বেহাত হচ্ছে সরকারি কোটি কোটি টাকার স্থাবর সম্পত্তি। এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানিয়েও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না স্থানীয় লোকজন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, চাখের সামনে সরকারি জমি ভরাট করে এতে স্থাপনা করছে কতিপয় ব্যক্তি অথচ কেউ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না। সরেজমিন দেখা যায়, সøুইচ গেটের পশ্চিমে, দক্ষিণে এবং পূর্ব পাশে ভরাট করে দোকান ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে ইতোমধ্যে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে প্রায় অর্ধশত স্থাপনা। জানা যায়, জনৈক জামাল নামের এক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে বেশ কিছু পতিত জলাশয় ভরাট করে বিক্রি করে যাচ্ছেন। জামাল সর্বশেষ একখণ্ড জমি আক্তার নামে এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেছেন মোটা অংকের বিনিময়ে। আক্তার উক্ত জমিতে পাকা স্থাপনা করে দোকান বসিয়েছেন এবং ওই স্থাপনার পিছনে নিজেই টিন ও পলিথিনের ঘেরায় আড়াল করে জলাশয় ভরাট করে যাচ্ছেন। জানতে চাইলে আক্তার ওই জমি ৬ লাখ টাকার বিনিময়ে জামালের কাছ থেকে কিনে নিয়েছেন বলে দাবি করেন। তবে তিনি ওই জমি পানি উন্নয়ন বোর্ডের মালিকানাধীন জমি বলে স্বীকার করেছেন। এভাবেই প্রতিদিন যে যার মতো করে জমি দখল করে সেখানে দোকান ঘর নির্মাণ করছেন। এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্থানীয় মাঠকর্মী মোহাম্মদ জাকের হোসাইন জানান, ‘পানি উন্নয়ন বোর্ডের সøুইচ গেটের পতিত জমি ভরাট করে দোকান ঘর নির্মাণের বিষয়ে পাউবোর কক্সবাজারস্থ নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছি, এসব লোক প্রভাবশালী, তারা কোনো বাধা মানছেন না।’ এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড কক্সবাজার কার্যালয়ের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী ইশতিয়াক নয়ন জানান, ‘বদরখালীতে আমাদের ১১ নং সøুইচ গেট ও এর আশপাশ দখল করে বেআইনিভাবে দোকান ঘর নির্মাণের বিষয়ে আমরা তালিকা করেছি। উচ্ছেদের জন্য সব প্রক্রিয়াও সম্পন্ন করা হয়েছে। চলমান লকডাউনের পরে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হবে।’



আরো সংবাদ


হামাসের কমান্ডার নিহত (৯৭২৫)চীনের মন্তব্যের জবাবে যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী (৯৫৯১)ইসরাইলি পুলিশের হাতে বন্দী মরিয়মের হাসি ভাইরাল (৭২৬০)বিহারের পর এবার উত্তরপ্রদেশেও নদীতে ভাসছে লাশ (৬৫৮১)‘কোয়াডে বাংলাদেশ যোগ দিলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে’ (৫৮১৫)যৌন অপরাধীর সাথে সম্পর্ক বিল গেটসের! এ কারণেই ভাঙল বিয়ে? (৪৮৬১)উত্তরপ্রদেশে হিন্দু অধ্যুষিত গ্রামের প্রধান হলেন আজিম উদ্দিন (৪৩১৪)নন-এমপিও শিক্ষকরা পাবেন ৫ হাজার টাকা, কর্মচারীরা আড়াই হাজার (৪০৯৪)গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি বিমান হামলায় ৯ শিশুসহ ২০ ফিলিস্তিনি নিহত (৩৮১১)কুম্ভমেলার তীর্থযাত্রীরা ভারতজুড়ে যেভাবে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে (৩৫৬৯)