১২ এপ্রিল ২০২১
`
বিভিন্ন সংগঠনের বিবৃতি

ভারতের মাদরাসায় হিন্দুগ্রন্থ পড়ানোর প্রস্তাবের নিন্দা

-

ভারতের মাদরাসাগুলোতে শিক্ষার্থীদের বেদ, গীতা, রামায়ণ ও মহাভারত পড়ানোর প্রস্তাবের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন। ভারতের সরকারকে এ সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন এসব সংগঠনের নেতারা।
জমিয়তে ওলামায়ে ইসলাম : সংগঠনের সভাপতি ও সাবেকমন্ত্রী মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস ও সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব শায়খুল হাদিস মাওলানা ড. গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম গতকাল এক বিবৃতিতে ভারতের মাদরাসাগুলোতে বেদ, গীতা, পড়ানোর প্রস্তাবের নিন্দা জানিয়ে বলেন, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি রক্ষা করার নামে হিন্দুত্ববাদি সরকার সুকৌশলে মুসলমানদের হিন্দু বানানোর গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র করছে। এর ফলাফল ভারতের জন্য শুভ হবে না।
নেতৃদ্বয় আরো বলেন, ভারত বহুত্ববাদী সংস্কৃতির দেশ। সে দেশে সংস্কৃতি রক্ষার নামে মুসলমানদের ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাদরাসায় হিন্দুগ্রন্থ পড়ানোর প্রস্তাব মুসলমানদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের নামান্তর। ভারত একটি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র। প্রত্যেক নাগরিক নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু মুসলমানদের ওপর অন্য ধর্মের গ্রন্থ চাপিয়ে দেয়া অন্যায়। নেতৃদ্বয় ভারতের সরকারকে মানবতার কল্যাণে এ সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসার আহ্বান জানান।
নেজামে ইসলাম পার্টি : ভারত সরকার প্রবর্তিত নতুন শিক্ষানীতির আওতায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ওপেন স্কুলিং সংস্থার প্রস্তাবে ভারতের মাদরাসায় হিন্দু ধর্মগ্রন্থ গীতা, ভগবত ও রামায়ণ ইত্যাদি পাঠদানের যে সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হয়েছে তা ভারতীয় ঐতিহ্যের পরিপন্থী এবং ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের সংবিধান লঙ্ঘনের সামিল। গতকাল এক যুক্ত বিবৃতিতে বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমির আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজি এবং মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার এ কথা বলেন। বিবৃতিতে আরো স্বাক্ষর করেন পার্টির সিনিয়র নায়েবে আমির মাওলানা আব্দুল মাজেদ আতহারী ও ঢাকা মহানগর আমির হাফেজ মাওলানা আবু তাহের খান।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারতের ক্ষমতায় চেপে বসা হিন্দুত্ববাদী উগ্র বিজেপি সরকার দীর্ঘ দিন ধরে সে দেশের শত শত বছরের ঐতিহ্যের কবর রচনা করে হিন্দুত্ববাদী উগ্র শাসন প্রতিষ্ঠার পাঁয়তারা করছে। তারা বিভিন্নভাবে ভারতের মাটি থেকে ইসলাম ও মুসলমানদের চিহ্ন মুছে দেয়ার ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র চালিয়ে আসছে। এ লক্ষ্যে বিজেপি সরকার এতদিন বহু বিতর্কিত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। নতুন শিক্ষানীতির নামে মুসলমানদের মন থেকে ইসলামী মূল্যবোধ বিলুপ্ত করা এবং মুসলিম জাতিসত্তার বিলোপ সাধনের অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। বহুজাতিক ভারতীয় ঐতিহ্যের বিরুদ্ধে পরিচালিত এ সব অপতৎপরতা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশের সরকারকে এ বিষয়ে কড়া প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানান।



আরো সংবাদ