১৭ জানুয়ারি ২০২১
`

শ্যামপুরে পেট্রলপাম্পের কর্মচারীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা দুই সহকর্মী গ্রেফতার

-

রাজধানীর শ্যামপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রিয়াদ হোসেন (২০) নামের একজন পেট্রলপাম্প কর্মচারীর শরীরে অকটেন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে তারই সহকর্মীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটিতে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ভোর পৌনে ৪টার দিকে শ্যামপুর জুরাইন সালাউদ্দিন পেট্রলপাম্পে এ ঘটনা ঘটে।
শ্যামপুর থানার ওসি মো: মফিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, এস আহমেদ নামে পেট্রলপাম্পে চারজন অপারেটর রাতে ডিউটি করছিল। তাদের মধ্যে মাহমুদুল হাসান ইমন (২২) নামে এক অপারেটর ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রিয়াদ তাকে ডাকতে যায়। ডাকাডাকি করার পরও সে উঠেনি। এ কারণে সামান্য একটু অকটেন ইমনের গায়ে ছিটিয়ে দেয় রিয়াদ। পরে ইমন ঘুম থেকে জেগে একটি বোতলে অকটেন ভরে সহকর্মী রিয়াদের গায়ে ঢেলে দেয়। পরে ইমন ম্যাচ দিয়ে আগুন ধরিয়ে রিয়াদের গায়ে ছুড়ে মারে। এতে রিয়াদের শরীরে মুহূর্তেই আগুন ধরে যায়। পরে পাম্পের অন্য কর্মচারীরা তাকে উদ্ধার করে বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করেন।
তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় রিয়াদের বাবা একটি মামলা করেছেন। মামলায় ইমনসহ অপর দুই অপারেটর ফাহাদ আহমেদ পাভেল (২৮) ও শহিদুল ইসলাম রনিকে (১৮) গ্রেফতার করা হয়েছে। জুরাইন কমিশনার রোডের ১৩২৭/১ নম্বর বাসায় পরিবারের সাথে থাকে রিয়াদ। তার বাবা ফরিদ মিয়া গাড়িচালক। দুই ভাইয়ের মধ্যে সে বড়। চলতি বছরই রিয়াদ সিদ্ধেশ্বরী কলেজে অনার্সে ভর্তি হয়।
তার বাবা ফরিদ মিয়া হাসপাতালে জানান, মাসিক পাঁচ হাজার টাকা বেতনে পার্টটাইম চাকরি নিয়ে চলতি মাসের ৪ তারিখে ওই পাম্পে যোগ দিয়েছিল রিয়াদ। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে পাম্পের লোকজন ফোন দিয়ে আমাদের হাসপাতালে আসতে বলেন। এসে রিয়াদকে দগ্ধ অবস্থায় দেখতে পাই। তার শরীরের ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। বর্তমানে সে আইসিইউতে আছে।



আরো সংবাদ