২৮ অক্টোবর ২০২০

১৭ পরিচালকের পদ শূন্য ঘোষণা করল বিএসইসি

-

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ছয়টি বীমাসহ মোট ১০ কোম্পানির ১৭ জন পরিচালকের পদ শূন্য ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। গতকাল রোববার বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবায়াত-উল-ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশ জারি করে কোম্পানিগুলোকে পাঠানো হয়েছে। চিঠির একই কপি দুই স্টক এক্সচেঞ্জসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠানো হয়েছে।
কোম্পানি ও পরিচালকরা হলেনÑ বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের পরিচালক সোহাইল হুমায়ুন, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রাতিষ্ঠানিক পরিচালক পাইওনিয়ার ড্রেসেস লিমিটেড, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালক শারমিন নাসির ও দিলরুবা শারিমন।
মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্সের পরিচালক শফিক আহেমদ, আজাদ মোস্তফা, আজিজ মোহাম্মদ এরশাদ উল্লাহ, ফারহানা ইসলাম সোনিয়া এবং সাদ কাদির বিন সোলাইমান, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের পরিচালক হাবিব ই আলম চৌধুরী ও বদলুর রহমান খান এবং পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের উদ্যোক্তা পরিচালক মোহাম্মদ ইকবালের পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়াও রয়েছেন ফুয়াং সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক হাসিনা ওপনেহ্যাপ, ইমাম বাটন ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক মো: লোকমান চৌধুরী, ইনেটক লিমিটেডের পরিচালক এ টি এম হাবিবুল আলম, সাদিকা মাহবুব, আনিসুজ্জামান এবং ইউনাইটেড এয়ারের পরিচালক শাহিনুর আলম। এর আগে ২২টি কোম্পানির ৬১ জন পরিচালককে ২ শতাংশ শেয়ার ধারণ করার জন্য চিঠি দেয় কমিশন। এর মধ্যে ২৫ জন পরিচালক ২ শতাংশ শেয়ার কিনেছেন। বাকিদের মধ্যে ১৮ জন পরিচালক নিজেরাই কোম্পানি পর্ষদ থেকে চলে গেছেন। আর ৯ কোম্পানির ১৭ পরিচালক এখনো পর্ষদে আছেন। তাদের পদ শূন্য ঘোষণা করে আদেশ জারি করল বিএসইসি।
উল্লেখ্য, পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির পরিচালক পদে থাকতে নিজ কোম্পানির ন্যূনতম ২ শতাংশ শেয়ার থাকা বাধ্যতামূলক। ২০১১ সালের নভেম্বরের প্রথম দিকে এই সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করে বিএসইসি। এ নির্দেশনা চ্যালেঞ্জ করে অনেক পরিচালক উচ্চ আদালতে রিট করেছিলেন। তবে কমিশনের নির্দেশনা বৈধ বলে ঘোষণা করেন উচ্চ আদালত।

 


আরো সংবাদ