২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্তি

দ্বিতীয়বার পরীক্ষার সুযোগ চেয়ে রিটের আদেশ আগামী সপ্তাহে

-

আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্তিতে দ্বিতীয়বার লিখিত পরীক্ষা দিতে পারবে না মর্মে বার কাউন্সিলের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিটের শুনানি শেষ হয়েছে। এ বিষয়ে আগামী সপ্তাহে আদেশ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল বিচারপতি তারিক-উল-হাকিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
আদালত বলেছেন, ‘আমরা এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি রাখছি। যদি এর মধ্যে তারা কোনো সমাধানে না পৌঁছাতে পারে তাহলে আগামী সপ্তাহে আমরা আদেশ প্রদান করব।’
আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্তিতে দ্বিতীয়বার লিখিত পরীক্ষা দিতে পারবে না বার কাউন্সিলের এমন সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে তিন হাজার ৫৯০ জন শিক্ষানবিস আইনজীবী গত ২৮ জুলাই হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির, তার সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট আসাদ উদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত।
পরে আইনজীবী শিশির মনির বলেন, বিধি সংশোধন করে এমসিকিউ পরীক্ষায় পাসকৃত পরীক্ষার্থীদের দুইবার লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদান করা হয়েছে। বার কাউন্সিলের পক্ষ থেকে নোটিশ দিয়ে ২০১৭ সালের এমসিকিউ পরীক্ষায় পাস করা ওই তিন হাজার ৫৯০ জন পরীক্ষার্থী সরাসরি আগামীতে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন মর্মে বলা হয়; কিন্তু ২০২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়ার পর বার কাউন্সিলের পক্ষ থেকে পুনরায় নোটিশ দিয়ে বলা হয় যে, উল্লেখিত তিন হাজার ৫৯০ পরীক্ষার্থী লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। বার কাউন্সিলের এই অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রিট দায়ের করা হয়।
শুনানির সময় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এক সপ্তাহের জন্য সময় আবেদন করেন। আবেদনে তিনি বলেন, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল আইন সংশোধনের উদ্দেশ্যে আইন মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ করেছেন। তারা চেষ্টা করছেন আলোচনার মাধ্যমে তাদেরকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ দিতে। আইনজীবী শিশির মনির জানান, এ সময় আমরা আদালতকে বলি, তারা অভ্যন্তরীণভাবে কী যোগাযোগ করছেন বা কত সময় লাগবে এ সম্পর্কে আমরা কিভাবে জানব? তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জানান, যদি তারা এই সপ্তাহের মধ্যে সমাধান করতে না পারেন, তখন আদালত যে আদেশ দেবেন তাই তারা মেনে নেবেন।
পরে আদালত মৌখিকভাবে বলেন, আমরা এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি রাখছি। যদি এর মধ্যে তারা কোনো সমাধানে না পৌঁছাতে পারে তাহলে আগামী সপ্তাহে আমরা আদেশ প্রদান করব।
উল্লেখ্য, গত ২৬ জুলাই বার কাউন্সিলের লিখিত পরীক্ষা ২৬ সেপ্টেম্বর ধার্য করে একটি বিজ্ঞপ্তি দেয়।


আরো সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের (১২৯৪২)ড. কামাল ও আসিফ নজরুল ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত : সন‌জিত (১১৭২৪)‘সনজিতকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না ঢাবি শিক্ষার্থীরা’ (১০৩২০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৯০২০)আজারবাইজান ৬টি গ্রাম আর্মেনিয়ার দখল মুক্ত করেছে (৮৩৪১)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৫৭১১)যে কারণে এই শীতেই ভারত-চীন মারাত্মক যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে (৫৬৫০)অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জানাজা অনুষ্ঠিত (৫২২৯)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ (৫১৬৭)ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি বক্তব্য স্পষ্টত সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ (৫১৫০)