২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ইলিশের বাজার রমরমা

ইলিশের বাজার রমরমা -

সাগরে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ছে, বাজারেও ভরপুর। এ কারণে বাজারে এই রুপালি মাছের দামও কিছুটা কম বলে জানিয়েছেন রাজধানীর বিক্রেতারা।
তবে নদী-হাওর, খাল-বিলে পানি বেশি থাকায় দেশী মাছ কম ধরা পড়ছে বলে এ জাতীয় মাছের দাম বেশ চড়া বলে জানিয়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা।
গতকাল শুক্রবার রাজধানীর সেগুনবাগিচা কাঁচাবাজার, শান্তিনগর, শাহজাহানপুর, মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা কাঁচাবাজারে খোঁজ নিয়ে এ তথ্য পাওয়া যায়। বিডি নিউজ।
ক্রেতা-বিক্রেতারা জানান, এই সপ্তাহে বাজারে বড় ইলিশের বেশ সমাগম দেখা যাচ্ছে। দেড় থেকে দুই কেজি ওজনের ইলিশসহ ছোট-বড় ইলিশে বাজার ভরপুর। আগের তুলনায় দামও কম।
মালিবাগ বাজারের মাছ বিক্রেতা মো: শাহ আলম বলেন, বিশেষ করে চট্টগ্রামে এবার প্রচুর ইলিশ ধরা পড়েছে। যে কারণে ঢাকার পাইকারি মাছ বাজারগুলোতে প্রচুর পরিমাণে ইলিশের আমদানি রয়েছে। আগের তুলনায় দামও কম।
তিন জানান, দেড় থেকে পৌনে দুই কেজি ওজনের ইলিশের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০০ টাকা থেকে ১৩০০ টাকায়, ৪০০-৫০০ গ্রামের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৫০০ টাকা থেকে সাড়ে ৫০০ টাকা কেজি।
মালিবাগ বাজার থেকে ইলিশ কেনার পর স্থানীয় ফরিদুল ইসলাম সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এবার বড় ইলিশ বাজারে উঠেছে বেশি। দেড় কেজি ওজনের দুইটা ইলিশ কিনলাম সাড়ে তিন হাজার টাকায়।
অন্যান্য সময়ে এত বড় ইলিশ কমই পাওয়া যায়। আগে বড় সাইজের তিন কেজি ইলিশ কিনতে চার হাজার টাকারও বেশি দিতে হয়েছে।
রামপুরা মাছ বাজারের ব্যবসায়ী সাইদুল ইসলাম জানান, বাজারে ইলিশের সরবরাহ বেশি থাকায় দামও কম। তবে দেশী মাছের দাম বেশি।
দেশের বিভিন্ন এলাকায় এখনো বন্যা অব্যাহত আছে। নদী, খাল, হাওরে পানি বেশি, যে কারণে জেলের জালে দেশী মাছ কম ধরা পড়ছে। বাজারে দেশী মাছ কম। এই কারণে দাম কিছুটা বেড়েছে।
তিনি জানান, বোয়াল মাছ সাড়ে ৭০০ টাকা থেকে সাড়ে ৮০০ টাকা কেজি, চিংড়ি ৯০০ টাকা থেকে এক হাজার টাকা, টেংরা ৭০০ টাকা, আইড়, চিতল, বেলে মাছ আকারভেদে ৭০০ টাকা থেকে ৯০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। তবে চাষের মাছের দাম কিছুটা কম জানিয়ে সাইদুল বলেন, চাষের চিংড়ি ৭০০ টাকা থেকে সাড়ে ৭০০ টাকা, রুই ৩০০ টাকা থেকে সাড়ে ৩০০ টাকা, টেংরা সাড়ে ৪০০ টাকা থেকে সাড়ে ৫০০ টাকা, পাবদা সাড়ে ৪০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা, শিং ৫০০ টাকা থেকে সাড়ে ৫০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।
শিম ও কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকা
বাজারে সবচেয়ে দামি সবজি শিম ২০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া গত দুই সপ্তাহ ধরে কাঁচামরিচের দাম ২০০ টাকার নিচে নামছে না। অন্যান্য সবজির দামও চড়া।
বাজারে প্রতি কেজি টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা। এ ছাড়া বেগুন ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা, গাজর ৮০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, কচুরমুখী ৭০ টাকা, কাঁকরোল, ঝিঙা, ধুন্দল ৬০ টাকা, করলা ৬০ থেকে ৮০ টাকা, পটোল ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।
অন্য দিকে প্রতি পিস বাঁধাকপি ও ফুলকপি ৫০ টাকা, লাউ মাঝারি আকারের ৫০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।
শাহজাহানপুর বাজারের সবজি বিক্রেতা মো: সোহেল বলেন, বন্যা ও অতিবৃষ্টির কারণে দেশের অধিকাংশ সবজিক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। এখন যেসব উঁচু এলাকা আছে সেখানে সীমিত পরিসরে বিভিন্ন সবজি আবাদ হচ্ছে। চাহিদার তুলনায় বাজারে এসব সবজির সরবরাহ কম। যে কারণে দাম বেশি।
তিনি বলেন, দুই সপ্তাহ ধরে কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। মধ্যে এক পোয়া (২৫০ গ্রাম) ৭০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করতে হয়েছে। আরেকটি অসময়ের সবজি শিম গত দুই সপ্তাহ ধরে বাজারে এসেছে, কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা।


আরো সংবাদ

এমসি কলেজে নারী ধর্ষণের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি মহিলা দলের ইরান দিয়ে আর্মেনিয়ার অস্ত্র বহনের অভিযোগ অস্বীকার তেহরানের নওগাঁয় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, হুমকির মুখে আহসানগঞ্জ হাট-সংলগ্ন ব্রিজ স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড দেশে করোনায় আরো ২৬ জনের মৃত্যু স্লোভেনিয়ায় বাংলাদেশীসহ ১১৩ অভিবাসী আটক ওমানে বাংলাদেশ স্কুল মাস্কাটের জন্য স্বস্তির খবর মাস্ক কেলেঙ্কারি : জেএমআই চেয়ারম্যান গ্রেফতার জাহালমকে ক্ষতিপূরণ প্রশ্নে রুলের রায় বুধবার রাজনীতিতে চরম দুঃসময় চলছে বিএনপি’র : কাদের আর্মেনিয়ান রেজিমেন্ট ধ্বংস করলো আজারবাইজান, শীর্ষ কমান্ডারের মৃত্যু

সকল

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের (১২৯৪২)ড. কামাল ও আসিফ নজরুল ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত : সন‌জিত (১১৭২৪)‘সনজিতকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না ঢাবি শিক্ষার্থীরা’ (১০৩২০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৯০২০)আজারবাইজান ৬টি গ্রাম আর্মেনিয়ার দখল মুক্ত করেছে (৮৩৪১)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৫৭১১)যে কারণে এই শীতেই ভারত-চীন মারাত্মক যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে (৫৬৫০)অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জানাজা অনুষ্ঠিত (৫২২৯)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ (৫১৬৭)ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি বক্তব্য স্পষ্টত সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ (৫১৫০)