১০ আগস্ট ২০২০

ফেনীর সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাদ হোসেনের দাফন সম্পন্ন

-
24tkt

ফেনীর সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাদ হোসেনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল সকাল ৯টায় নামাজে জানাজা শেষে তার পৈতৃক নিবাস ফেনী সদর উপজেলার মধ্যম লেমুয়া দেওয়ানজি বাড়ি পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
এ সময় ফেনী জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজ্জামানসহ জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। ডা: সাজ্জাদ হোসেন মরহুম দেওয়ান মাহবুবুল হকের বড় সন্তান। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।
ফেনী জেলা বিএমএ সভাপতি অধ্যাপক ডা: সাহেদুল ইসলাম কাওসার বাসসকে জানান, মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৬টার দিকে ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালের আইসিইউতে সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাদ হোসেন মৃত্যুবরণ করেন।
ফেনী সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানায়, ১২ জুন নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিক্যাল কলেজ হতে প্রাপ্ত ফলাফলে সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাদ হোসেনের করোনা পজিটিভ এসেছিল। গত ১৪ জুন করোনায় শ্বাসকষ্ট অনুভব হলে তাকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালের ৪০ শয্যার হাই ফ্লো অক্সিজেন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখান হতে গত ১৮ জুন পরিবারের সিদ্ধান্তক্রমে সিভিল সার্জনকে ঢাকার আসগর আলী হাসপাতালে নিয়ে যায় তার পরিবার। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন ২৪ দিন ধরে লড়াই করে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন।
ডা: কাওসার বলেন, কার্ডিয়াক এ্যারিথমিয়া এবং হার্ট ফেইলিউর হওয়ায় তাকে গত ১ জুলাই ভেন্টিলেশনে নেয়া হয়েছিল। উচ্চ প্রবাহে অক্সিজেন দেয়া হলেও তার অবস্থার তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। এরই মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে সিভিল সার্জনের ফুসফুসে নিউমোনিয়া সংক্রমণ মারাত্মক আকার ধারণ করেছিল। চিকিৎসকদের সর্বাত্মক চেষ্টা সত্ত্বেও তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।
অফিস সূত্র জানায়, ডা: সাজ্জাদ হোসেন ১৭তম বিসিএসের স্বাস্থ্য ক্যাডারে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। তার স্ত্রী ডা: নাদিরা দিলরুবা স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজের সহকারী অধ্যাপক। তার একমাত্র মেয়ে এবার এসএসসি পাস করেছে।


আরো সংবাদ