১২ আগস্ট ২০২০

সাবেক মন্ত্রী টি এম গিয়াসের ইন্তেকাল

বিএনপির শীর্ষ নেতাদের শোক
-
24tkt

শরীয়তপুর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, সাবেক মন্ত্রী টি এম গিয়াস উদ্দিন গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শোকবার্তায় বলা হয়Ñ দেশের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সাবেক মন্ত্রী মরহুম টি এম গিয়াসউদ্দিন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নীতি ও আদর্শের বলিষ্ঠ অনুসারী হিসেবে এলাকার বিএনপি নেতাকর্মী ও জনগণের কাছে ছিলেন অত্যন্ত সমাদৃত। তিনি মন্ত্রী, এমপির মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনকালে যে প্রজ্ঞা, সততা ও নিষ্ঠার স্বাক্ষর রেখেছেন তা সবার জন্য অনুকরণীয়। তার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের মূলে ছিল শহীদ জিয়ার বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী দর্শন। তিনি ব্যক্তিগত জীবনে ছিলেন অত্যন্ত উদার ও বিনয়ী স্বভাবের মানুষ। নিজ এলাকায় বিএনপিকে সুসংগঠিত করতে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল থেকে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন। সমাজসেবক হিসেবে জনকল্যাণমূলক কাজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তার মতো একজন অভিজ্ঞ ও প্রাজ্ঞ রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে গভীরভাবে ব্যথিত হয়েছি। মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা এবং শোকার্ত পরিবারবর্গ, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় বিএনপির শোকবার্তায়।
মুসলিম লীগের শোক : টি এম গিয়াস উদ্দিনের ইন্তেকালে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়ে বাংলাদেশ মুসলিম লীগের নির্বাহী সভাপতি আবদুল আজিজ হাওলাদার ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মো: আনোয়ার হোসেন আবুড়ী এক বিবৃতি দিয়েছেন। মুসলিম লীগ নেতারা বলেন, টি এম গিয়াস উদ্দিনের ইন্তেকালে শরীয়তপুর জেলার জাতীয়বাদীর শক্তির অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল, যা সহজে পূরণ হওয়ার নয়। টি এম গিয়াস উদ্দিন ছিলেন ধনী-গরিব সবার প্রিয়। তিনি সুদীর্ঘকাল শরীয়তপুরের মানুষের সেবা করেছেন। আমরা তার রূহের মাগফিরাত কামনা করি সাথে সাথে শোকহত পরিবারের সদস্যদের জানাই আন্তরিক সমবেদনা।

 


আরো সংবাদ