১০ আগস্ট ২০২০

হায়দার আকবর খান রনোকে দেখতে হাসপাতালে ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

-
24tkt

গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী গতকাল বৃহস্পতিবার সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য হায়দার আকবর খান রনোকে দেখার পর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যান। এ সময় তিনি হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসিরউদ্দিনসহ ডাক্তার নার্সদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের ধন্যবাদ জানান।
গতকাল বেলা সোয়া ১১টার দিকে হাসপাতালে জাফরুল্লাহ চৌধুরী রনোর শারীরিক খোঁজখবর নেয়ার জন্য তার সাথে দেখা করেন। পরে পরিচালকের সাথে তার অফিসে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এ সময় তিনি গত মাসে ২৪ মে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার উন্নত চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে আইসিইউ কেবিন বরাদ্দ করেন। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের হাসপাতালের চিকিৎসকবৃন্দ সব সময় তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং প্লাজমা সরবরাহ করেন। পরিচালকের অফিসে গিয়ে তার চিকিৎসায় সহযোগিতার জন্য পরিচালক, অধ্যাপক, টেকনিশিয়ানসহ সব কর্মকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা এবং অভিনন্দন জানান। ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের প্রথম পরিচালক কর্নেল এম এন হকের সততা ও কর্তব্যের কথা স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘হি ওয়াজ গ্রেট ম্যান’ প্রথম পরিচালক কখনো বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নিতেন না, বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নেয়া পছন্দ করতেন না। তিনি সৎ ও নিষ্ঠাবান ছিলেন। ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী নিজেও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র ছিলেন।
বর্তমান পরিচালক বলেন আপনার জন্য আমরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার সব ব্যবস্থা করেছিলাম, আপনি আমাদের চিকিৎসা নিলে আমরা খুবই উৎসাহী হতাম।
এর উত্তরে ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, তোমাদের এখানে অনেক রোগীর চাপ, তাই তোমাদের উপর চাপ সৃষ্টি না করে আমার গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছি। তোমাদের আর দেশের জনগণের দোয়ায় আল্লহর রহমতে আর চিকিৎসদের অক্লান্ত সেবায় ও পরিশ্রমে আমি এখন সুস্থ হয়ে উঠেছি।
বর্তমান পরিচালককে ডা: চৌধুরী বলেন শত সমস্যার মধ্যেও তুমি ভালো কাজ করছ। এ সময় ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সাথে ছিলেন, গণস্বাস্থ্য হাসপাতালের আইসিইউ প্রধান অধ্যাপক ডা: নজীব মোহাম্মদ, রেডিওলজী প্রধান অধ্যাপক ডা: মতিন খান, অধ্যাপক ডা: শওকত আরমান।

 

 


আরো সংবাদ