২৬ মে ২০২০

প্রবাসী পল্লী গ্রুপের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

-

করোনার প্রাদুর্ভাবে দুর্গত নিম্ন আয়ের মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রবাসী পল্লী গ্রুপ। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই প্রবাসী পল্লী গ্রুপ দেশের বিভিন্ন স্থানে সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে চলেছে। গতকালও নারায়ণগঞ্জে প্রবাসী পল্লী গ্রুপ ত্রাণ বিতরণ করে। সরকার যথেষ্ট পরিমাণ ব্যবস্থা গ্রহণ করায় এবং মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করায় এখন অবধি লাগাম টেনে রাখা গেছে আক্রান্তের সংখ্যার। করোনার বিস্তার প্রতিরোধে দেশের বিভিন্ন এলাকা লকডাউন করার পাশাপাশি নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টিন বা ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে সরকার। দরিদ্র-অসহায়-কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের স্বাবলম্বী ব্যক্তিরা। এ মহাদুর্যোগে মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন প্রবাসী পল্লী গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুহিদুর রহমান মুহিদ। গত কয়েকদিন ধরে তিনি নারায়ণগঞ্জের সাতগ্রাম, খাগকান্দা, উচিৎপুরা ইউনিয়ন, গোপালদী পৌরসভা, বিশনন্দী, দুপ্তারা ইউনিয়নে করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করছেন। প্রতিটি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, দুই কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি ডাল, এক কেজি তেল, এক কেজি করে লবণ দেয়া হচ্ছে। এ ছাড়াও প্রয়োজন মোতাবেক শিশুদের গুঁড়ো দুধও দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও ৬০০ রিকশা চালক, অসহায়, দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করেছেন প্রবাসী পল্লী গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুহিদুর রহমান মুহিদ। প্রবাসী পল্লী গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুহিদুর রহমান মুহিদ বলেন, মানুষের জন্যই কাজ করি। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। করোনাভাইরাসের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে মানুষের কষ্ট হচ্ছে। আমরা এই দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম হবো। এ জন্য সমাজের বিত্তবানদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা। বিজ্ঞপ্তি।

 


আরো সংবাদ