১১ জুলাই ২০২০

চট্টগ্রামে মধ্যবিত্ত পরিবারের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দেবে পুলিশ

-

করোনাভাইরাস মহামারীর প্রাদুর্ভাবে সারা দেশে লকডাউনের কারণে অফিস-আদালত বন্ধ রয়েছে। সরকার দ্বিতীয় দফায় বন্ধের মেয়াদ বাড়িয়েছে আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত। পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিম্ন আয়ের হতদরিদ্রদের সাহায্য চালিয়ে যাচ্ছে সরকারি-বেসরকারি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান।
এ অবস্থায় মধ্যবিত্ত পরিবারের কথা চিন্তা করে তাদের সহযোগিতার আগ্রহ প্রকাশ করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ কমিশনারের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান সিএমপির ডিসি (দক্ষিণ) মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, ‘সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবীদের বেশির ভাগই মধ্যবিত্ত। দীর্ঘ দিন ধরে সরকারি-বেসরকারি অফিস ও কারখানা বন্ধ রয়েছে। অনেকের ঘরে যা জমা ছিল তা ফুরিয়ে এসেছে। লোকলজ্জার কারণে তারা কারো কাছে চাইতেও পারছেন না। তাই তাদের কথা চিন্তা করে সিএমপি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মধ্যবিত্ত পরিবারের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা রেখেই তাদের পাশে দাঁড়াতে চায় সিএমপি দক্ষিণ বিভাগ।’ ‘যারা ত্রাণ নিচ্ছে বা নেবে তাদের আমরা ক্যামেরা বা মিডিয়ার সামনে ফোকাস করতে চাই না,’ যোগ করেন তিনি। সিএমপির কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন মধ্যবিত্তদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনার সামর্থ্য ফুরিয়ে এসেছে, কিন্তু লোকলজ্জায় বলতে পারছেন না। আপনারও সহযোগিতা প্রয়োজন। কিন্তু সামাজিক মর্যাদা রক্ষায় চাইতে পারছেন না। আমরা আপনার পাশে দাঁড়াতে চাই।’ ‘নিম্নোক্ত নাম্বারে এসএমএস করুন অথবা ফোনে বলুন। ডিসি দক্ষিণ ০১৭৬৯০৫৮১২১, এডিসি দক্ষিণ ০১৭৬৯০৫৮১২৫, এসি কোতোয়ালি ০১৭১৩৩৭৩২৫৪, এসি চকবাজার ০১৭৬৯৬৯৪২২৩, ওসি কোতোয়ালি ০১৭১৩৩৭৩২৫৬, ওসি বাকলিয়া ০১৭১৩৩৭৩২৬১, ওসি চকবাজার ০১৭৬৯৬৯০০৬৪, ওসি সদরঘাট ০১৭৬৯৬৯০০৬৫।’ পুলিশের ওপর আস্থা রাখান আহ্বান জানিয়ে ওসি আরো বলেন, ‘কথা দিচ্ছি, আপনার সামাজিক মর্যাদা রক্ষার দায়িত্বও আমাদের। এই সহযোগিতার কথা কেউই জানবে না। মানুষ সন্দেহ করবে এমন বিশেষ কোনো ব্যাগও ব্যবহার করা হবে না। ঘরে থাকুন, নিরাপদ থাকুন।’


আরো সংবাদ