০৬ জুন ২০২০

মহামারীতেও নবীনগরে থেমে নেই ইটভাটার শ্রমিকদের কাজ

-

ব্যস্ততম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে নেই কোনো যানবাহনের আওয়াজ। থেমে থেমে চলছে দুয়েকটি রিকশা ও ভ্যান। নীরবতায় আচ্ছন্ন পুরো উপজেলার গ্রাম ও তার সড়কগুলো।

প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে তেমন কেউ বের হচ্ছেন না। এমন মহামারী মধ্যেও ভোর থেকে অনায়াসে মাটি আর পানি দিয়ে ইটভাটায় কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন শত শত শ্রমিক। নেই কোনো নিরাপত্তা, সাধারণত তারা মাস্কও ব্যবহার করছেন না।

নবীনগর উপজেলায় বেশ কয়েকটি ইটভাটা রয়েছে। করোনাভাইরাসের মহামারীকে উপেক্ষা করে ভাটার স্তূপ থেকে গোলানো মাটি নিচ্ছেন বেশ কিছু শ্রমিক। সেখান থেকে ট্রলি দিয়ে আবার ইট বানানোর লাইনে মাটি নিচ্ছেন কেউ কেউ। সেখানে ইট বানিয়ে যাচ্ছেন আরো কিছু শ্রমিক। এভাবেই ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে ইটভাটা শ্রমিকদের।

এ সময় শ্রমিকেরা জানান, প্রতিদিন ভোর ৬টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ইটভাটায় কাজ করতে হয়। আগুনে যারা কাজ করে তারা শিফট পরিবর্তন করে আসে।

করোনাভাইরাস সম্পর্কে জানতে চাইলে একজন শ্রমিক বলেন, ‘কাজ না করলে খাব কী? মালিক পক্ষের কাছ থেকে আমাদের ধার নেয়া। আমরা কাজ না করতে পারলে আমাদের ঘরের বাজার হবে না, আমার পরিবার না খেয়ে থাকবে। একদিন কাজে না এলে ওই দিন আমাদের না খেয়ে থাকতে হবে।’ আরেক শ্রমিক বলেন, ‘শুনেছি দেশে নাকি কী রোগ এসেছে কিন্তু আমাদের তো আর কিছুই করার নেই, দুবেলা-দুমুঠো খাবার জোগাতে আমাদের কাজ করতেই হবে।’

‘সারা বছর এলাকাতে ভ্যান চালাই। কার্তিক মাস থেকে বৈশাখ মাস পর্যন্ত ইটভাটায় কাজ করি’ যোগ করেন তিনি।

 


আরো সংবাদ

সামাজিক দূরত্বের নিয়ম না মানায় বাড়ছে সদরঘাটে লঞ্চে যাত্রীদের করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি উপসর্গ নিয়ে করোনা টেস্টের জন্য গতকাল রাজধানীর মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অপেক্ষা অসচেতনতা সাভারে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ ও বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে মানববন্ধন ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত কক্সবাজারে দুই সপ্তাহের বিশেষ লকডাউন বিক্ষোভে বাধা দেয়ার অভিযোগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা পাবনায় বাড়ি থেকে স্বামী স্ত্রী ও মেয়ের লাশ উদ্ধার চট্টগ্রামে চড়া দামে ওষুধ বিক্রি ৩ ফার্মেসি মালিক গ্রেফতার ইনকিলাব থেকে দুই সাংবাদিকের চাকরিচ্যুতিতে ডিআরইউ’র উদ্বেগ মতিঝিল ও পল্লবীতে বিএনপির খাবার বিতরণ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের করোনা টেস্ট কিট অনুমোদনে স্বাস্থ্য মন্ত্রীকে লিগ্যাল নোটিশ

সকল





justin tv