২৫ মে ২০২০

ফেনীর যুবদল নেতা নাছির হত্যার বিচার হয়নি ২৩ বছরেও

-

ফেনী জেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম নাছির হত্যার ২৩ বছরেও বিচার হয়নি। ১৯৯৭ সালের ২৯ মার্চ ফেনী শহরের ট্রাংক রোডে বের হওয়া মিছিলে তৎকালীন সরকারদলীয়দের ব্রাশ ফায়ারে খুন হন নাছির। এ সময় জেলা যুবদলের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন দুলাল ও যুবদল নেতা হারুন-উর রশিদ মজুমদারসহ অনেকেই গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। জেলা যুবদলের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন দুলাল বাদি হয়ে ফেনী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় জেলা ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি আজহারুল হক আরজু, সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সাজু, একরামুল হক একরাম, জাহাঙ্গীর কবির আদেল, আবদুল্লাহিল মাহমুদ শিবলুসহ ১৯ জনের নাম উল্লেখ করেন।
নিহতের পরিবার সূত্র জানায়, মামলার বাদি ও ৯ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন। বিগত বিএনপি সরকারের আমলে মামলাটি চট্টগ্রামে দ্রুত বিচার আদালতে প্রেরণ করা হয়। আসামিপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত বিচারকাজ স্থগিত করেন। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ২০১০ সালে রাজনৈতিক বিবেচনায় অন্য মামলার সাথে বহুল আলোচিত এ মামলাটিও প্রত্যাহার করা হয়। নিহতের বড় ভাই যোবায়ের আহম্মদ জানান, প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মামলাটি রাজনৈতিক বিবেচেনায় প্রত্যাহার করে।
তিনি জানান, ওই মামলায় আসামিদের মধ্যে একরামুল হক একরাম ২০১৪ সালের ২০ মে প্রকাশ্য দিবালোকে দলীয় প্রতিপক্ষের হামলায় খুন হন। এর আগে রতন নামের আরো এক যুবলীগ কর্মী নিজ দলীয় প্রতিপক্ষের হামলায় খুন হন। অপর আসামিদের মধ্যে জাহাঙ্গীর কবির আদেল ও আবদুল্লাহিল মাহমুদ শিবলুকে একরাম হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।


আরো সংবাদ





maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv gebze evden eve nakliyat buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu