১১ এপ্রিল ২০২০

আপাতত কোয়ারেন্টিনে থাকবেন খালেদা জিয়া

-

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কিছুদিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন, নেতাকর্মীদেরও কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলেছেন বলে জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতরাতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা দলীয় প্রধানের সাথে সাক্ষাৎ শেষে বিএনপি মহাসচিব এই কথা জানান। তিনি বলেন, আমরা শুধু ম্যাডামের সাথে দেখা করতে এসেছি। তিনি খুব অসুস্থ। চিকিৎসকরা তাকে দেখছেন। তার চিকিৎসার ব্যাপারটা নিশ্চিত করার ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে এবং কিছুদিন অন্তত ম্যাডামকে যেন কোয়ারেন্টিনে রাখা হয় অর্থাৎ অন্য কেউ যেন দেখা-সাক্ষাৎ না করে সেসব বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি।
তিনি বলেন, এই সময়ে আমরা রাজনৈতিক কোনো আলোচনা করিনি। স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ তারা তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং আল্লাহর কাছে দোয়া করেছেন, শুকরিয়া আদায় করেছেন যে, তিনি ফিরে এসছেন বাসায়।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন যে, চেয়ারপারসন অত্যন্ত অসুস্থ। তারপরে তিনি সব নেতাকর্মী ও দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং সবাইকে ভালো থাকতে বলেছেন। তিনি কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য বলেছেন এবং ভয়াবহ যে মহামারী হচ্ছে সেজন্য সবাই যেন আমরা সচেতনভাবে ভালো চলি, নিজেকে বাঁচিয়ে চলি সেই কথা বলেছেন। কয়দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবেন বেগম জিয়া এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সেটা চিকিৎসকরা ঠিক করবেন।’

সন্ধ্যা ৭টায় ফিরোজায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা চেয়ারপারসনের সাথে দেখা করেন। মির্জা ফখরুলসহ স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান উপস্থিত ছিলেন। ফিরোজায় আসার পর খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক তার সাথে দেখা করে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানান।
বিকেল সোয়া ৫টায় বিএসএমএমইউ থেকে মুক্ত হয়ে নিজের বাসায় আসেন খালেদা জিয়া। কিছুক্ষণ বিশ্রামের পর ব্যক্তিগত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের একটি টিম তার সাথে দেখা করে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত অবগত হন। চিকিৎসক অধ্যাপক এফ এফ রহমান, অধ্যাপক রজিবুল ইসলাম, অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 


আরো সংবাদ