০৯ এপ্রিল ২০২০

টিএসসিতে নাগরিক পরিষদের মানববন্ধন পুলিশি বাধায় পণ্ড

-

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে টিএসসি রাজু ভাস্কর্যে নাগরিক পরিষদের উদ্যোগে গতকাল রোববার আবরার ফাহাদের নামে বুয়েটে ছাত্রবাস নির্মাণ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটের মধ্যবর্তী রাস্তার নাম আবরার সরণি করা, আবরার হত্যার বিচার, ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের নিরাপত্তার দাবিতে মানববন্ধন শুরুর প্রাক্কালে পুলিশি বাধায় তা পণ্ড হয়ে যায়।
এ বিষয়ে নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ শামসুদ্দীন বলেন, সীমান্ত হত্যার বিরোধী নাসির আব্দুল্লাহর অবস্থানকে সংহতি জানিয়ে মানববন্ধন শুরু করার প্রাক্কালে সাদা পোশাকে ওয়াকিটকি হাতে পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘চার দিক থেকে আপনাদের ঘিরে রাখা হয়েছে। নাগরিক পরিষদকে কোনো কর্মসূচি পালন করতে দেয়া হবে না। আপনারা এখনই এখান থেকে চলে যান বলে চার দিকে পুলিশি ঘেরাওয়ের দিকে ইঙ্গিত করেন।’
নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, ‘আজ আমরা দাবি করতে এসেছি আবরার ফাহাদের নামে বুয়েটে ছাত্রবাস নির্মাণ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটের মধ্যবর্তী রাস্তার নাম আবরার সরণি করা, আবরার হত্যার বিচার, ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। আবরার হত্যার বিচার যেন সাগর-রুনি হত্যা মামলার মতো তালবাহানায় পরিণত না হয়। শহীদ আবরার ফাহাদকে ‘জাতীয় বীর’ খেতাব দিতে হবে। স্বাধীনতা ও সাবভৌমত্ব বিরোধী সব চুক্তি বাতিলই আবরার হত্যার বিচার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটের মধ্যবর্তী সড়কের নাম ‘আবরার সরণি’ করতে হবে। অমিত সাহার কক্ষে আবরার ফাহাদকে খুন করায় ওই কক্ষকে ‘আবরার গ্যালারি’তে রূপান্তর করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, ‘ফেনী নদীর পানির অধিকার একমাত্র এ দেশের মানুষের। এ নদীর শতভাগ মালিকানা বাংলাদেশের। সুপেয় পানির অভাবে ঢাকা-চট্টগ্রাম নগরবাসী দুঃসহ যন্ত্রণা ভোগ করছে। প্রতি লিটার বোতলজাত পানি ২০ টাকা দরে কিনে খেতে বাধ্য হচ্ছে। ফেনী নদীর সুপেয় পানি ঢাকা ও চট্টগ্রাম নগরীতে সরবরাহ করে এ যন্ত্রণা থেকে রেহাই দিতে হবে।
এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলনের আহ্বায়ক মো: হারুন অর রশিদ খান, নাগরিক পরিষদের মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকা জাতীয় শিল্পী নুরুন্নেছা শান্তা, দুর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলনের মহানগর নেতা নুরুল ইসলাম বিপ্লব, সোনার বাংলা পার্টির সভাপতি সৈয়দ হারুন অর রশিদ, পিডিপির কেন্দ্রীয় মাকসুদ আলম চৌধুরী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ

সকল