০৯ এপ্রিল ২০২০

জাতীয় দিবসে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা তারিখ ব্যবহারে হাইকোর্টের রুল

-

একুশে ফেব্রুয়ারিসহ সব জাতীয় দিবস উদযাপনে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা সন ও তারিখ ব্যবহারে সরকারের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এ মর্মে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো: মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল রোববার এ রুল জারি করেন।
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জনৈক নস্কর আলীর করা রিট আবেদনে এ আদেশ দেয়া হয়। রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মো: মনিরুজ্জামান লিংকন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।
গত ১২ ফেব্রুয়ারি চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদার নস্কর আলী সরকারি-বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান-সংস্থায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা বা শহীদ দিবসসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দিবসের অনুষ্ঠান, পালন, উদযাপনে বাংলা সন, তারিখ ব্যবহার বা উল্লেখের নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদনটি করেন।
আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয়-আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দিবস পালন বা উদযাপনে ইংরেজি তারিখের উল্লেখ থাকলেও বাংলা সন, তারিখের কোনো উল্লেখ থাকে না। সবচেয়ে দুঃখের বিষয়, ভাষা শহীদ দিবসের তারিখটাও প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ইংরেজি তারিখে।
ঘটনার দিনটি যে ৮ ফাল্গুন ছিল, ব্যবহার না করায় তা অনেকেই জানেই না। সরকার বাংলা পঞ্জিকা পরিবর্তনের পর এখন থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি ৮ ফাল্গুন পড়ার কথা। কিন্তু কেউ তো বাংলা সন-তারিখটা ব্যবহার করছি না। তাই বাংলা সন-তারিখ ব্যবহারের নির্দেশনা চেয়ে আবেদনটা করা হয়।


আরো সংবাদ