১২ জুলাই ২০২০

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে জাতি হতাশ ও বিস্মিত সুশীল ফোরাম

-

ভারতের দেয়া ঋণের টাকায় সে দেশ থেকে সামরিক সরঞ্জাম কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে কী ধরনের অস্ত্র কেনা হবে সে বিষয়ে এখন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। কী কী অস্ত্র কেনা হবে সে সিদ্ধান্ত নেবে সশস্ত্র বাহিনী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের এ বক্তব্যে বিস্ময় ও হতাশা প্রকাশ করে সুশীল ফোরামের সভাপতি মো: জাহিদ বলেন, এ বক্তব্যে এক ধরনের বৈপরীত্য রয়েছে। কারণ এ দিকে বলা হচ্ছে, ভারত থেকে অস্ত্র কিনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। অন্য দিকে বলা হচ্ছে, এ সিদ্ধান্ত নেবে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ। এ কথা পরস্পর বিপরীতমুখী।
তা ছাড়া গত ২০ আগস্ট ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয় সংকরের সাথে এক বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের পানির সীমা নিয়ে ভারত-মিয়ারমারের সাথে যেসব অমীমাংসিত বিষয় নিয়ে জাতিসঙ্ঘে আপত্তি দেয়া হয়েছে সেগুলো পারস্পরিক আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে কিভাবে উঠিয়ে নেয়া যায় এ ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে।
আদালতের মাধ্যমে সমুদ্রসীমা সংক্রান্ত মামলায় আমরা ভারতের সাথে লড়ে জিতেছি। সরকারসহ দেশের মানুষ এই নিয়ে গর্ববোধ করে। সে ক্ষেত্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই ধরনের বক্তব্য খুবই অনাকাক্সিত এবং দেশের স্বার্থের বিপরীত। এ বিষয়ে তার বক্তব্য দেয়া উচিত হয়নি। এতে করে তার অতিউৎসাহী মনোভাবের প্রকাশ ঘটেছে। যেখানে সমুদ্রসীমা সংক্রান্ত অমীমাংসিত বিষয়গুলো জাতিসঙ্ঘে দাখিল অবস্থায় রয়েছে। সেখানে এই বিষয়ে বক্তব্য না দেয়াই দূরদর্শিতার পরিচয় হতো। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ