০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মাওলানা আবদুর রহীম ছিলেন শতাব্দীর শ্রেষ্ট জ্ঞানতাপস : ডা: ইরান

মাওলানা আবদুর রহীম ছিলেন শতাব্দীর শ্রেষ্ট জ্ঞানতাপস : ডা: ইরান - ছবি : সংগৃহীত

লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন, মাওলানা আবদুর রহীম ছিলেন শতাব্দীর শ্রেষ্ট জ্ঞানতাপস। শতবছরে বাংলাদেশে যে সকল ইসলামী ব্যক্তিত্বের আবির্ভাব ঘটেছে তাদের শীর্ষে ছিলেন মওলানা মোহাম্মদ আব্দুর রহীম। তিনি বাংলাদেশে ইসলামী ও বাংলা সহিত্যকে ব্যাপকভাবে সমৃদ্ধ করেছেন। লেখনীর মাধ্যমে ইসলামকে সহজবোধ্যভাবে তুলে ধরেছেন। আত্মপ্রচার বিমুখ ছিলেন যে তিনি নামের আগে মওলানা উপাধিটা ব্যবহারেও কুণ্ঠাবোধ করতেন। তিনি ছিলেন প্রখ্যাত আলিম, বিজ্ঞ ফকীহ, ইসলামী চিন্তাবিদ, সু-লেখক, বাগ্মী সু-সাহিত্যিক। অন্যদিকে পার্লামেন্টারিয়ান, রাজনীতিবিদ ও অর্থনীতিবিদ। শুধু মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত একজন ব্যক্তির মাঝে এতগুলো জ্ঞানের সমাহার সত্যিই এক আশ্চার্যের বিষয়। তিনি ভারতীয় উপমহাদেশের সমকালীন যুগে এক অনন্য ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

শনিবার বিকেলে নয়া পল্টনে দলীয় কার্যালয়ে বাংলাদেশ লেবার পার্টির উদ্যোগে মওলানা আবদুর রহীমের ৩৫তম মৃত্যুবাষির্কীতে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শুনেছি তিনি সকল সার্টিফিকেট ছিঁড়ে ফেলেন এবং মসি যুদ্ধে লিপ্ত হন। বাংলাদেশের আলিমদের মাঝে যে বিষয়টির অভাব পরিলক্ষিত হয়ে আসছিল, তা হলো তাদের লিখিত কোনো অবদান তেমন একটা নেই। এ বিষয়টিই হয়তো তিনি উপলব্ধি করেছিলেন এবং কলিকাতায় অধ্যয়নকালেই গবেষণায় আত্মনিয়োগ করেন। তার ক্ষুদ্রতর জীবনের শতাধিক গ্রন্থ অনুবাদ ও রচনা তার এ গবেষণারই বাস্তব ফসল। তিনি ছিলেন একজন বাগ্মী সুবক্তা। তার ভাষা ছিল যেমনি সুন্দর তেমনি আকর্ষণীয়। সাধারণ জনসভার চেয়ে সুধী সমাবেশে, সেমিনার সিম্পোজিয়ামে তার বক্তৃতায় আকর্ষণ বেশি ছিল। তার বক্তৃতা বিষয়বস্তু ভিত্তিক, সুসংহত এবং আকর্ষণীয় ছিল। আধুনিক ও প্রাচীন ভ্রান্ত ধারণাগুলোর মোকাবেলায় ইসলামী জীবন দর্শনের শ্রেষ্ঠত্ব যুক্তি ও ধারাবাহিকতার মাধ্যমে এমনভাবে তুলে ধরতেন যেকোনো সমালোচক তার সমালোচনা করতে পারত না।

লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে বক্তব্য রাখেন লেবার পার্টির মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা শওকত আমীন, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম চৌধুরী মিলন, সম্মিলিত সংগ্রাম পরিষদের মহাসচিব মাওলানা আনোয়ার হোসাইন, মুসলিম লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, লেবার পার্টির অর্থ সম্পাদক মো: রাসেল সিকদার, কেন্দ্রীয় সদস্য রুম্মান সিকদার, ছাত্রমিশন সাধারন সম্পাদক মো: শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রেস বিজ্ঞ‌প্তি


আরো সংবাদ


premium cement