২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪ হিজরি
`

ইন্দো-প্যাসিফিকে জার্মানি-অস্ট্রেলিয়ার মহড়া

ইন্দো-প্যাসিফিকে জার্মানি-অস্ট্রেলিয়ার মহড়া - ছবি : সংগৃহীত

ইন্দো-প্যাসিফিকে অস্ট্রেলিয়ার সাথে যৌথ সামরিক মহড়া করবে জার্মানি। তাদের ১৩টি যুদ্ধবিমান মহড়ায় অংশ নেবে।

চীনের সাথে পশ্চিমা দেশগুলোর উত্তেজনা বাড়ছে। এই অবস্থায় অস্ট্রেলিয়া ও জার্মানির যৌথ সামরিক মহড়া হবে ইন্দো-প্যাসিফিকে।

জার্মানি মোট ১৩টি যুদ্ধবিমান পাঠাচ্ছে। এই যুদ্ধবিমানগুলো 'পিচ ব্ল্যাক' প্রশিক্ষণ মহড়ায় অংশ নেবে। জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিমানও তাতে অংশ নেবে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পরিপ্রেক্ষিতে জার্মানি এখন পূর্বের দিকে নজর দিচ্ছে বলে সেদেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, একইসাথে অন্য অঞ্চলের উপরও আমরা মনোযোগ দিচ্ছি।

সোমবারই ছয়টা ইউরোফাইটার জেট জার্মানি থেকে ইন্দো-প্যাসিফিকের দিকে উড়ে গেছে। তিন দিন ধরে মহড়া হবে। সেখানে দুই শ’বার আকাশে রিফুয়েলিং করবে যুদ্ধবিমানগুলো।

২০২০-র সেপ্টেম্বরে বার্লিন ইন্দো-প্যাসিফিক গাইডলাইন পেপার প্রকাশ করে। সেখানে বলা হয়, জার্মানি এবং ইইউ ইন্দো-প্যাসিফিকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করবে। কারণ, আন্তর্জাতিক স্থিতাবস্থার জন্য এটা জরুরি।

চীনের চিন্তার কারণ নেই
জার্মানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই মহড়া নিয়ে চীনের চিন্তার কোনো কারণ নেই কারণ, তা দক্ষিণ চীন সাগর ও তাইওয়ানের খাঁড়িতে হবে না। এই দুইটি জায়গা নিয়েই চীনের সাথে পশ্চিমা দেশগুলোর উত্তেজনা রয়েছে। যুদ্ধবিমানগুলো আন্তর্জাতিক রুটে চলবে।

জার্মানির তরফ থেকে আরো জানানো হয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার সাথে এই যৌথ মহড়া করে চীনকে কোনো বার্তা পাঠানো হচ্ছে না। জার্মানিতে অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রদূত ফিলিপ গ্রিন বলেছেন, চীনের এই মহড়াকে অন্যভাবে নেয়ার কোনো অর্থ নেই। আমরা চাই এই অঞ্চল শান্তিতে থাকুক।


আরো সংবাদ


premium cement