২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সফর ১৪৪৪ হিজরি
`

ভিয়েনা সংলাপকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা করছে ইউরোপের ৩ দেশ

ভিয়েনা সংলাপকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা করছে ইউরোপের ৩ দেশ - ছবি : সংগৃহীত

ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের সংলাপে জড়িত তিন ইউরোপীয় দেশ ফ্রান্স, ব্রিটেন ও জার্মানি আলোচনার পরিবেশকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার লক্ষ্যে এক যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেছে। বিবৃতিতে তারা তাদের ভাষায় ‘অবাস্তব দাবি-দাওয়া’ না তুলতে ইরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় প্রায় পাঁচ মাস বিরতির পর যখন বৃহ্স্পতিবার পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আলোচনা আবার শুরু হয়েছে তখন এ আহ্বান জানাল তিন ইউরোপীয় দেশ।

এসব দেশ শুক্রবার রাতে এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছে, সংলাপের জন্য নতুন করে যে প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়েছে তা নিয়ে আলোচনা করার তেমন কিছু নেই। বিবৃতিতে বলা হয়, নতুন করে আলোচনা শুরু করার কোনো সুযোগ নেই। এখনও যখন একটি চুক্তি করার সম্ভাবনা রযেছে তখন চুক্তি করবে কিনা ইরানকে সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

বৃহস্পতি ও শুক্রবারের আলোচনায় ইরান, রাশিয়া ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের উপস্থিতি থাকলেও তিন ইউরোপীয় দেশের কোনো প্রতিনিধির ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, এসব দেশ এবার ভিয়েনায় প্রতিনিধি পাঠায়নি।

তবে তারা এমন সময় নতুন প্রস্তাবনা প্রত্যাখ্যান করেছে যখন এ প্রস্তাবনা ইরান তৈরি করেনি বরং তৈরি করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা জোসেপ বোরেল। তার একান্ত উদ্যোগে ভিয়েনায় পাঁচ মাস বিরতির পর আবার ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আবার শুরু হয়েছে।

২০২১ সালের মার্চ মাস থেকে ভিয়েনায় পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর সাথে দীর্ঘমেয়াদি সংলাপ চালিয়ে আসছিল ইরান। আমেরিকাকে ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে আনা এবং ইরানের ওপর থেকে নিপীড়নমূলক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের লক্ষ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউর মধ্যস্থতায় ওই আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।


আলোচনায় রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স, জার্মানি ও ব্রিটেন সরাসরি অংশ নেয় এবং আমেরিকা পরোক্ষভাবে এতে যোগ দেয়।আমেরিকা ২০১৮ সালে পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল বলে ভিয়েনা সংলাপে দেশটির সরাসরি অংশগ্রহণে আপত্তি জানায় ইরান।

ইরানের পক্ষ থেকে ছাড় দেয়ার কারণে এই আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়। কিন্তু আমেরিকা প্রয়োজনীয় ছাড় দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভিয়েনা সংলাপ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। গত পাঁচ মাস ধরে ওই সংলাপ আবার চালু করার জন্য কূটনৈতিক মহলে ব্যাপক প্রচেষ্টা চলে বিশেষ করে ইইউর পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা জোসেপ বোরেল এক বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা আলোচনাকে একটি সফল পরিণতির দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্যাপক চেষ্টা চালান। বোরেলের চেষ্টার ফলেই দৃশ্যত আবার ভিয়েনায় আলোচনা শুরু হয়েছে।

সূত্র : পার্সটুডে


আরো সংবাদ


premium cement