০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`

মন মাতানো বর্ষায় চুল থাকুক নিরাপদ

বর্ষায় চুল থাকুক নিরাপদ - ছবি : সংগৃহীত

প্রকৃতিতে বর্ষার আগমনী বার্তায় বিদায় নেয় গ্রীষ্মের তাপদাহ। বৃষ্টির রিমঝিম ছন্দে বাংলা মায়ের প্রকৃতিতে বর্ষা এসে হাজির হয়। ঋতুর এই পরিবর্তনের সাথে সাথে আমাদের ত্বকেও বিভিন্ন পরিবর্তন দেখা দেয়।

বিশেষ করে, বর্ষার স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ার প্রভাব পড়ে মাথার ত্বকে। এ সময় চুলের স্বাভাবিক কোমলতা হ্রাস পেতে শুরু করে। বছরের এই সময়টায় অনেকের চুলই সম্পূর্ণ প্রাণহীন হয়ে পড়ে। তাই বর্ষার মৌসুমে চুলের সুস্থতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রয়োজন বিশেষ যত্নের। সেইসাথে চুলের প্রসাধনী নির্বাচনেও বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা উচিৎ।

বর্ষায় আকাশ যখন মেঘ মেঘ খেলা করে তখন মেতে উঠে সকলের মন, ঝুম বৃষ্টিতে ভিজতে উতলা হয় অনেকেই। তবে বর্ষার পানি চুলে পড়লে হতে হবে সতর্ক। কারণ বর্ষার দিনগুলোয় চুলে নানান সমস্যা দেখা দেয়। বৃষ্টির পানি খালি চোখে পরিষ্কার দেখা গেলেও, এতে থাকে এক ধরনের অ্যাসিড। তাছাড়া স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া, মাথায় ঘাম, চুল ঠিকমতো না শুকানো ইত্যাদি চুলে ছত্রাকের বাসা বাঁধতে সহায়ক।

এ সবের ফলে মাথার ত্বকে চুলের গোড়ায় ইনফেকশন, খুশকি, চুল পড়াসহ নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে গ্রীষ্ম হোক বা বর্ষা, সুস্থ-সুন্দর চুলের কোমলতা-উজ্জ্বলতা কার না কাম্য! কিন্তু যত্ন নিতে করণীয় কি?

মন মাতানো বর্ষায় কোমল উজ্জ্বল চুলই আদর্শ চুল। সেটি নিশ্চিত করতে সৌন্দর্য চর্চায় প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহারের কোনো বিকল্প নেই। চুলকে প্রাকৃতিকভাবে সুস্থ রাখার সেরা উপাদান হলো মেথি, আমলকী, অ্যালোভেরা ইত্যাদি। সাথে প্রয়োজন তেলের ব্যবহার।

বর্ষার মৌসুমে যারা সুস্থ চুল পেতে চান, বাহারি সব গুণে ভরপুর প্রাকৃতিক এই উপাদানগুলো তাদের জন্য আশীর্বাদই বলা যায়। তবে যদি তেলের মধ্যেই এইসব প্রাকৃতিক উপাদান পাওয়া যায় তাহলে তো কথাই নেই! আর চুলের যত্নে সেই উপহারটিই দিচ্ছে প্যারাস্যুট অ্যাডভান্সড এক্সট্রা কেয়ার অ্যান্টি হেয়ারফল অয়েল।

এই তেলে আছে নারিকেল, মেথি, আমলকী ও অ্যালোভেরার শক্তি, যা চুলকে গোড়া থেকে মজবুত করে চুল পড়া কমায় মাত্র ৪৫ দিনে। একইসাথে এটি চুলের ত্বকে জমে থাকা অ্যাসিড ও ক্ষতিকারক পদার্থ দূর করে চুলকে করে তোলে আরো সুন্দর, কোমল ও উজ্জ্বল।

প্যারাসুট অ্যাডভান্সড এক্সট্রা কেয়ার অ্যান্টি হেয়ারফল অয়েলের শিশিতে আছে একটি রুট অ্যাপ্লাইয়ার। এর সাহায্য তেল চুলের গোড়া পর্যন্ত পৌঁছাতে সক্ষম হয় এবং চুলের সেরা যত্ন নিশ্চিত করে। সব সুবিধা আছে মানে মন মাতানো বর্ষায় চুল থাকবে নিরাপদ।

প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম চুলের যত্নে ব্যবহার হয়ে আসছে নারিকেল তেল। ঋতু যেটিই হোক না কেন, চুলকে সুস্থতা সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ। আর স্বাস্থোজ্জ্বল কোমল চুলের সাথী হিসেবে বেছে নিন প্যারাসুট অ্যাডভান্সড এক্সট্রা কেয়ার অ্যান্টি হেয়ারফল অয়েল।


আরো সংবাদ


premium cement