১৪ আগস্ট ২০২২
`

এবার ব্রোঞ্জের সাথে এল রৌপ্যও

নারীদের ব্রোঞ্জের সাথে এসেছে পুরুষদের রৌপ্য। - ছবি : নয়া দিগন্ত

ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় চলমান আইএসএসএফ গ্র্যান্ড প্রিক্সে শনিবার ভালো একটা দিন গেল বাংলাদেশের। দেশকে আরো দুটি পদক এনে দিয়েছেন শ্যুটাররা। আগের দুটির মতো এই দুই পদকও এসেছে ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্ট থেকে।

ব্রোঞ্জের গন্ডি পেরিয়ে এবার রৌপ্যের দেখা পেল বাংলাদেশ। আর তা পুরুষদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল দলগততে। রাব্বী হাসান মুন্না, শোভন চৌধুরী ও ইউসুফ আলী মিলে এনে দেন এই পদক। তাদের স্কোর ১৪।

মহিলাদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল দলগততেও এসেছে পদক। দেশ এই পদক পায় নাফিসা তাবাসসুম, সৈয়দা আতকিয়া হাসান দিশা ও সাজিদা হকের কল্যাণে। ৬১৮.২ স্কোর করে তাদের এই সাফল্য।

এ নিয়ে আসরে তিনটি ব্রোঞ্জ পদকের দেখা পেলেন নাফিসা। ১০ মিটার এয়ার রাইফেল একক, ১০ মিটার এয়ার রাইফেল মিশ্র দলগত ইভেন্টের পর মহিলা দলগততে পদক জয় তার।

ফলে বাংলাদেশী শ্যুটারার ১টি রৌপ্য ও তিনটি ব্রোঞ্জ পদক গলায় তোলেন।

নতুন আসা ইরানী কোচ জায়ের রেজাইর অধীনে দেশী শ্যুটারদের যে উন্নতি হচ্ছে সেটারই প্রমাণ এই একের পর এক পদক পাওয়া।

শনিবার স্বর্ণ জয়েরই আশা জাগিয়েছিলেন মুন্না, শোভন, ইউসুফরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের হারতে হয় সিঙ্গাপুরের শ্যুটারদের কাছে। সিঙ্গাপুরের প্রতিযোগীরা ১৬ স্কোর করে প্রথম হন। শোভনদের স্কোর ২ পয়েন্ট কম।

মহিলা দলগততে ইন্দোনিশয়া ও সিঙ্গাপুর স্বর্ণের লড়াই করে। এর আগে বাছাই পর্বে ৯২৪.১ স্কোর করেছিলেন নাফিসা-দিশারা।

তাদের এই সাফল্যের দিনে ফের হতাশ করেছেন পিস্তল শুটাররা। ১০ মিটার মিশ্র দলগততে শাকিল আহমেদ ও আনজিলা আমজাদ বাদ পড়েছেন সেমিফাইনাল থেকেই।


আরো সংবাদ


premium cement