২১ জানুয়ারি ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

বেশি রফতানি কী অতিরিক্ত ইলিশ ধরার ঝুঁকি তৈরি করবে?


বাংলাদেশ থেকে দুর্গাপূজার মৌসুমে আরো আড়াই হাজার টন ইলিশ মাছ ভারতে রফতানির অনুমোদন দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার আমদানি ও রফতানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দফতরকে এক চিঠি দিয়ে এই অনুমতির কথা জানানো হয়েছে।

তিন দিন আগেই ২০৮০ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রফতানি করার অনুমতি দেয় বাংলাদেশ।

কিন্তু হিমায়িত খাদ্যদ্রব্য রফতানিকারকদের সমিতি’র সাথে জড়িত ব্যবসায়ীরা বলছেন তারা আরো বেশি ইলিশ রফতানির সুযোগ চান।

অন্যদিকে ইলিশ গবেষকরা বলছেন, এতে অতিরিক্ত মাছ ধরার ঝুঁকি তৈরি হবে।

যা বলছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়
মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ জানিয়েছেন, দুর্গা পূজার সময় প্রতি বছরই ভারতে ইলিশ যায়। এটি তারই অংশ। এবার গতবারের তুলনায় ইলিশ বেশি ধরা পড়েছে, সেজন্য রফতানি বাড়ানো হচ্ছে। তবে এটি সেরকম উন্মুক্ত রফতানি নয়। শুধু দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে রফতানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সারা বছর ধরে চলবে না।

তিনি জানান, আরো ৬৩টি হিমায়িত মাছ রফতানিকারক কোম্পানিকে এই অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

মাত্র তিন দিন আগেই ৫২টি প্রতিষ্ঠানকে ২০৮০ মেট্রিকটন বা ২০ লাখ কেজির বেশি ইলিশ রফতানি করার অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ।

অন্যদিকে ইলিশ গবেষকরা বলছেন, এতে অতিরিক্ত মাছ ধরার ঝুঁকি তৈরি হবে।

অতিরিক্ত মাছ ধরার আশঙ্কা
প্রতিবছর দুর্গাপূজার সময় শুভেচ্ছা হিসেবে কিছুটা রফতানির সুযোগ দেয়া হয়। তবে এ বছর এর পরিমাণ অনেক গুণ বেশি।

২০১৯ সালে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির সুযোগ দেয়া হয়েছিল। এবছর তার নয়গুণ বেশি রফতানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

ইলিশ গবেষক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যার অধ্যাপক মো: নিয়ামুল নাসের বলছেন, এমনিতেই এবছর খুব বেশি ইলিশ সমুদ্র থেকে ভেতরে আসছে না। যেসব বড় ইলিশ আপনারা দেখছেন তা সমুদ্রের ইলিশ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। সমুদ্রে এখন ইলিশ মাছ ধরা হচ্ছে তিন চারটা সোনার ব্যাবহার করে এমন ট্রলার দিয়ে। যাদের সংখ্যাও এখন অনেক। সমুদ্রেই ধরে ফেলা হচ্ছে বলে যেসব নদীতে মূলত ইলিশ আসতো, সেখানে তারা আসতে পারছে না।

তিনি বলছেন, রফতানির সুযোগ বাড়ানো হলে মাছ ধরাও বাড়তে পারে। এতে অতিরিক্ত মাছ ধরার ঝুঁকি তৈরি হতে পারে।

তিনি আরো বলছেন, সমুদ্রে ইলিশ মাছ ধরার কারণে নদীতে যে জেলেরা ইলিশ মাছ ধরেন তাদের পেশাও ঝুঁকিতে পড়বে। কারণ তারা ট্রলারে যেভাবে ইলিশ ধরছে সেই তুলনায় পরিমাণে তেমন যোগান দিতে পারবে না।

তবে তিনি বলছেন, সামনে প্রজননের মৌসুমে ইলিশ ধরার উপর যে নিষেধাজ্ঞার সময় আসছে তাতে হয়ত দেশের নদীতে বেশি প্রবেশ করতে পারবে ইলিশ মাছ।

এ বছর এই নিষেধাজ্ঞার সময় গত বছরের চেয়ে ১০ দিনে এগিয়ে আনা হয়েছ।

আগামী চৌঠা অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ মাছ ধরা যাবে না।

সূত্র : বিবিসি

দেখুন:

আরো সংবাদ


premium cement