১৬ জুন ২০২১
`

খুনের মামলায় ভারতীয় কুস্তিগিরের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

খুনের মামলায় ভারতীয় কুস্তিগিরের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি - ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস

ছত্রসাল স্টেডিয়াম হত্যাকাণ্ডে দু'বারের অলিম্পিক পদক জয়ী ভারতীয় কুস্তিগীর সুশীল কুমারের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে দিল্লির এক আদালত। সঙ্গে সন্দেহভাজন আরো ৯ জনের বিরুদ্ধেও জারি হয়েছে পরোয়ানা।

২৩ বছর বয়সী সাবেক জুনিয়র ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন সাগর কুমারের হত্যা মামলায় সুশীল কুমারকে খুঁজছে দিল্লি পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না সুশীলের। পরে তার বিরুদ্ধে লুক-আউট নোটিশও জারি করা হয়। শনিবার দিল্লির এক আদালত জোড়া অলিম্পিক পদকজয়ীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। এও শোনা যাচ্ছে যে, সুশীল কুমারের খোঁজ দেয়ার জন্য দিল্লি পুলিশ পুরস্কারও ঘোষণা করতে চলেছে।

পুলিশের তরফে এক সিনিয়র অফিসার বলেন, ‘আমরা আদালতে জামিন অযোগ্য পরোয়ানার আবেদন জানিয়েছিলাম। আদালত তা মঞ্জুর করেছে। আমরা দিল্লি সরকারের কাছেও চিঠি পাঠিয়ে জানিয়েছি যে, তাদের কর্মচারি সুশীল কুমার ও তার সহযোগী অজয় কুমার, যিনি একজন শারীরশিক্ষার শিক্ষক, আক্রান্তরা এই দু’জনের নাম নিয়েছেন। তাই তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া উচিত।'

পুলিশ রিপোর্ট অনুযায়ী গত ৪ মে রাতে ছত্রসাল স্টেডিয়ামে কুস্তিগীরদের দু'টি দলের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাঁধে, যাতে মৃত্যু হয় ২৩ বছরের সাবেক জুনিয়র ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন সাগরের। আহত হন আরো দু'জন, যাদের নাম অমিত কুমার (২৭) ও সোনু (৩৫)।

মৃত সাগর দিল্লি পুলিশের একজন হেড কনস্টেবলের ছেলে। প্রাথমিকভাবে পার্কিং নিয়ে বচসা থেকেই ঝামেলার সূত্রপাত বলে শোনা গিয়েছিল। তবে তদন্তে উঠে আসে অন্য তথ্য। সম্পত্তি সংক্রান্ত বিষয় এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি শুধু হাতাহাতিই নয়, বরং গুলিও চালানো হয়েছিল বলে দাবি করা হয়।

সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর বিষয় হল, সুশীল প্রাথমিকভাবে নিহত সাগর ও আহতদের তাদের আখড়ার কেউ নন বলে দবি করেছিলেন। তাদের বহিরাগত বলে উল্লেখ করেছিলেন। তবে পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন সুশীল।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস



আরো সংবাদ