১০ এপ্রিল ২০২১
`

‘অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিরাপদ ও কার্যকর’

‘অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিরাপদ ও কার্যকর’ - ছবি : সংগৃহীত

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নিরাপদ ও কার্যকর। এই টিকার সাথে রক্ত জমাট বাঁধার কোনো সম্পর্ক নেই। তদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ)।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে ইএমএর নির্বাহী পরিচালক ইমার কুক বলেন, ‘আমাদের তদন্ত বলছে, এই টিকা নিরাপদ ও কার্যকর। পাশাপাশি করোনায় অসুস্থতা ও মৃত্যুঝুঁকি কমাতে এটি যথেষ্ট উপযোগী।’

তিনি আরো বলেন, ‘তদন্তে রক্ত জমাট বাঁধার সাথে এই টিকার সম্পর্ক পাওয়া যায়নি। তবে যেসব টিকা গ্রহীতার রক্ত জমাট বাঁধার অভিজ্ঞতা হয়েছে, আমাদের তদন্ত দলের সদস্যরা বলছেন, এটা এক ধরনের বিরল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া।’

কী কারণে এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিল, তা তদন্ত করা হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন ইমার কুক। পাশাপাশি টিকার ডোজের অ্যাম্পুল ও প্যাকেটে এই টিকার উৎপাদন সংক্রান্ত তথ্য অন্তর্ভূক্ত করতেও অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

‘মনে করা যাক, আমি আগামীকাল টিকা নেব। সেক্ষেত্রে আমি নিশ্চিতভাবেই জানতে চাইব, টিকা নেয়ার পর আমার দেহে কী কী প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এই বিষয়টিই তদন্ত করবে ইএমএ । আর টিকার ডোজের সাথে এর উৎপাদন সংক্রান্ত তথ্য সংযুক্ত করে দিলে তা জনসচেতনতা বাড়াতেও ভূমিকা রাখবে।’

ইউরোপে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নেয়ার পর কয়েকজন টিকা গ্রহীতার দেহে রক্ত জমাট বাঁধার লক্ষণ দেখা দেয়। ইইউভুক্ত দেশ এবং যুক্তরাজ্যের এক কোটি ৭০ লাখ মানুষকে এই টিকার প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে, এর মধ্যে প্রায় ৪০ জন টিকা গ্রহীতার এই অভিজ্ঞতা হয়েছে বলে জানাচ্ছে পরিসংখ্যান।

এ ঘটনা প্রকাশিত হওয়ার পর ২৩টি দেশ অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার ব্যবহার স্থগিত করে। থাইল্যান্ড, ডিআর কঙ্গো ইত্যাদি কয়েকটি দেশ ব্যতীত এই তালিকায় থাকা অন্যান্য দেশগুলো ইউরোপের।

সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৩ প্রভাবশালী দেশ ফ্রান্স, জার্মানি ও ইতালি বলেছিল, টিকাটির প্রয়োগ ফের শুরু হবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে তারা ইএমএর পর্যালোচনার ফলের জন্য অপেক্ষা করবে।

সেই অনুযায়ী বৃহস্পতিবার পর্যালোচনা প্রকাশ করল ইএমএ। ইতোমধ্যে জার্মানি ও ফ্রান্স ইএমএর এই পর্যালোচনা ও টিকার তথ্য সংযুক্ত করা বিষয়ক প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস স্প্যান বলেছেন, ‘কী কারণে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটল তা উদ্ঘাটন করা জরুরি। যদি চিকিৎসকরা এ ব্যাপরে অবহিত হন, তারা রোগীদের সচেতন ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে পারবেন।’

ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী জিন ক্যাসটেক্স বলেছেন, তিনি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেবেন। শুক্রবার বিকেলে টিকা নেওয়ার কথা রয়েছে তার।

সূত্র: বিবিসি



আরো সংবাদ


লক খোলা লকডাউন, রোববার নতুন নির্দেশনা (১৫৪৬৩)র‌্যাবের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করলো পুলিশ (১৪৫৪৯)১৪ এপ্রিল থেকে জরুরি সেবার প্রতিষ্ঠান ছাড়া সব বন্ধ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী (১২০৮১)ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার করুন : বাবুনগরী (৮৫১১)১৪ এপ্রিল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনের চিন্তা সরকারের : কাদের (৮৩৮২)এবার টার্গেট জ্ঞানবাপী মসজিদ! (৭১৪৪)আপনি যে পতনের দ্বারপ্রান্তে তা বুঝবেন কিভাবে? (৫৪২১)মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে বন্দুক নিয়ে লড়ছেন বিক্ষোভকারীরা (৪৫৯৮)হিমছড়িতে ভেসে এলো বিশাল তিমি (৪৪৫৭)বিজেপির নির্বাচনী গানে বাংলাদেশে ইসলামপন্থীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ছবি (৪২৪৬)