১৫ এপ্রিল ২০২১
`

ইসলামী গান গেয়ে ‘আল্লাহকে খুশি করতে’ চান শিল্পী আবু রায়হান

ইসলামী গান গেয়ে ‘আল্লাহকে খুশি করতে’ চান শিল্পী আবু রায়হান - ছবি : নয়া দিগন্ত

‘আমি গান গাই আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য। গান গাই ইসলামের জন্য। আজকে মানুষ ইসলামী সংস্কৃতি বাদ দিয়ে পশ্চিমা ও বিজাতীয় সংস্কৃতি গ্রহণ করছে। নিজেদের স্বকীয়তা ভুলে যাচ্ছে। অপসংস্কৃতিতে ডুবে বিপথগামী গচ্ছে। মুসলমানদের নিজস্ব পরিচয়, সংস্কৃতি ও সভ্যতা সবই ভুলতে বসেছি আমরা। এমন পেক্ষপটে মুসলিমদেরকে জাগিয়ে তুলতে ও ইসলামের বিলুপ্তপ্রায় সংস্কৃতির ব্যাপক চর্চার উদ্দেশেই আমি গান গাই,’ বলছিলেন কণ্ঠশিল্পী আবু রায়হান।

ইসলামী গানের জগতে বর্তমানে বেশ জনপ্রিয় একজন কণ্ঠশিল্পী আবু রায়হান। জাতীয় শিশু-কিশোর সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘কলরব’ -এর সদস্য তিনি। দেশের কোটি দর্শক শ্রোতা আবু রায়হানের গান শুনেন। ভক্তদের মাঝে তার প্রতিটি নতুন গান আগের পরিচয় ছাপিয়ে নতুন করে পরিচিত করে তুলছে। ইসলামী গান গেয়ে রাষ্ট্রপতি পদকসহ তিনবার স্বর্ণপদকও পেয়েছেন তিনি।

কুড়িগ্রামের অলিপুর থানার ভদ্রপাড়া গ্রামের মাওলানা ইয়াসিন আলীর ছেলে আবু রায়হান। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ। বাবা কুড়িগ্রামের একটি আলিয়া মাদরাসার শিক্ষক ছিলেন। দু’বছর আগে তিনি মারা গেছেন। চমৎকার কণ্ঠে কুরআন তেলাওয়াত করতেন তিনি। এ কারণে এলাকায় তার খুব সুনাম ছিল।

আবু রায়হানের বড় ভাইও এক সময় এলাকায় বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে গজল গাইতেন। সাথে নিয়ে যেতেন ছোট ভাই আবু রায়হানকে। এভাবে ইসলামী গানের প্রতি অনুপ্রাণিত হন আবু রায়হান। একপর্যায় কুড়িগ্রামের এক অনুষ্ঠানে তার দেখা হয় কলরব শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা আইনুদ্দীন আল আজাদের সাথে। তিনি আবু রায়হানের গজল শুনে মুগ্ধ হন। বুঝতে পারেন শিশু আবু রায়হানের সুপ্ত প্রতিভা বিকশিত হলে এই শিশু এক দিন ইতিহাস গড়বে। বড় ভাইকে প্রস্তাব দেন রায়হানকে ঢাকায় নিয়ে আসতে। পরে আইনুদ্দীন আল আজাদের কাছে ইসলামী গানের দীক্ষা দেন আজকের জনপ্রিয় শিল্পী আবু রায়হান।

‘মিছে এই জীবন’, ‘ক্ষণিকের মুসাফির’, ‘অচিন পাখি’, ‘রিমঝিম’, ‘প্রার্থনা’ ও ‘যেদিন চলে যাবো’সহ অনেকগুলো অ্যালবাম করেছেন এই শিল্পী।

শৈশবে আবু রায়হানের গাওয়া ‘মিছে এই জীবনের রঙধনুটা’ বেশ জনপ্রিয়তা পায়। দেশে এখনো যত ওয়াজ মাহফিল ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান হয় বেশিরভাগ স্থানে আবু রায়হানের ইসলামী গান বাজানো হয়। তার গানে দর্শক শ্রোতারা কখনো আনন্দিত হন, কখনো উজ্জীবিত হন। আর কখনোবা প্রাণভরে কাঁদেন। এভাবেই গত এক যুগেরও বেশি সময় ধরে গান গেয়ে ইসলামপ্রিয় মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন আবু রায়হান।



আরো সংবাদ


কোহলিকে সরিয়ে শীর্ষে বাবর আজম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা করে জাপানের রাষ্ট্রদূত ও পাকিস্তান হাইকমিশনারের চিঠি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে আবারো ২৫০০ টাকা করে দেয়ার উদ্যোগ আলোচনা দীর্ঘায়িত করা ক্ষতিকর হবে : খামেনি বেঙ্গালুরুর টানা দ্বিতীয় জয় বাবর ধামাকায় পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয় রাহুল গান্ধীর হুঁশিয়ারি : বিজেপি এলে পশ্চিমবঙ্গ জ্বলবে করোনায় মৃত্যুতে নতুন রেকর্ডে কঠোর লকডাউন শুরু গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অনৈতিক কাজের অভিযোগে কালিয়াকৈরে যুবক আটক দুর্নীতির অভিযোগে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ক্রিকেটার হিথ স্ট্রিক

সকল