০৫ মার্চ ২০২১
`

৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে টিকা দেয়া শুরু : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক - ছবি : সংগৃহীত

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে একযোগে টিকা প্রয়োগ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।তিনি বলেন, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রীর সাথে আমরা কথা বলেছি। তিনিই আমাদের এ সময় দিয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে টিকা প্রয়োগ প্রস্তুতি দেখতে এসে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, কাল (বুধবার) কুর্মিটোলায় ৫ জনকে দিয়ে টিকা কার্যক্রমের শুরু হবে। পরে ২৫ জনকে টিকা দেয়া হবে।

এদিকে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর জানিয়েছে, বেক্সিমকোর আনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৫০ লাখ ডোজ করোনা ভ্যাকসিন ল্যাব টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছে এবং মানবদেহে ব্যবহারের উপযুক্ত। এক সংবাদ সম্মেলনে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

প্রথম টিকা নেবেন রুনু বেরুনিকা কস্তা
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশে টিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে বুধবার। রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর উদ্বোধন করবেন। এদিন দেশের প্রথম ব্যক্তি হিসেবে করোনার টিকা নেবেন সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু বেরুনিকা কস্তা। তিনি কুর্মিটোলা হাসপাতালের ডায়ালাইসিস ইউনিটের ইনচার্জ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কুর্মিটোলা হাসপাতালের এক নার্স জানান, বুধবার প্রথমে ৩ জন নার্সকে টিকা দেওয়া হবে। একইসঙ্গে এদিন আরও ৩ জন চিকিৎসককেও টিকা দেয়া হবে। প্রথমে টিকা নেবেন ডায়ালাইসিস ইউনিটের ইনচার্জ ও সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু বেরুনিকা কস্তা। তার পরে টিকা নেবেন ফিমেল মেডিসিন ইউনিটের ইনচার্জ ও সিনিয়র স্টাফ নার্স মুন্নি খাতুন ও একই ইউনিটে নার্স রিনা সরকার।

জানা গেছে, উদ্বোধনের পর ২৮ জানুয়ারি ঢাকার পাঁচটি হাসপাতালে টিকাদান শুরু হবে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪০০ থেকে ৫০০ জনের ওপর টিকা প্রয়োগ করা হবে। তাদের এক সপ্তাহ পর্যবেক্ষণে রাখার পর ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে টিকাদান শুরু হবে।

গত ২১ জানুয়ারি সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২০ লাখ ডোজ টিকা ভারত থেকে উপহার হিসেবে পেয়েছে বাংলাদেশে। এছাড়া বাংলাদেশ সরকারিভাবেও ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে তিন কোটি ডোজ টিকা কিনছে, যার প্রথম চালানে ৫০ লাখ ডোজ টিকা ২৫ জানুয়ারির দেশে পৌঁছেছে।



আরো সংবাদ