২০ জানুয়ারি ২০২১
`

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাড়ে ১৪ লাখ ছাড়াল


জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএইচইউ) প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী- রবিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা সাড়ে ১৪ লাখ ছাড়িয়েছে। এছাড়া করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৬ কোটি ২১ লাখেরও বেশি। প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৬ কোটি ২১ লাখ ৫৮ হাজার ৩৩৮ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১৪ লাখ ৫০ হাজার ৩৩৮ জন।

জেএইচইউ এর পরিসংখ্যান বলছে, রোববার সকাল পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩ কোটি ৯৭ লাখ ৫৭ হাজার ১৩০ ব্যক্তি।

গত বছর চীনের ‍উহানে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। পরে চলতি বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

এদিকে করোনাভাইরাসের প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। করোনা শনাক্তের পাশাপাশি সমানতালে বেড়ে চলেছে মৃত্যু। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ১ কোটি ৩২ লাখ ৩৮ হাজার ৪৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে এবং ২ লাখ ৬৬ হাজার ৯ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনা আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত ৯৩ লাখ ৫১ হাজারেরও বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৩৬ হাজার ২০০ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী ৬২ লাখ ৯০ হাজার ২৭২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৭২ হাজার ৫৬১ জনের।

বাংলাদেশ পরিস্থিতি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে আরো ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬ হাজার ৫৮০ জনে। এছাড়া, নতুন করে ১ হাজার ৯০৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৬০ হাজার ৬১৯ জনে পৌঁছেছে।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, দেশের সরকারি ও বেসরকারি ১১৮ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৭১৮টি এবং আগের নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ১২টি। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ২৭ লাখ ৪৩ হাজার ৫৯২টি। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬২ শতাংশ। আর মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্ত হার ১৬ দশমিক ৭৯ শতাংশ।

নতুন যে ৩৬ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ২৮ এবং নারী আটজন। এখন পর্যন্ত মোট মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৫ হাজার ৫২ জন বা ৭৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং নারী ১ হাজার ৫২৮ জন বা ২৩ দশমিক ২২ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

এদিকে, করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরো ২ হাজার ২০৯ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৭৫ হাজার ৮৮৫  জনে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমকি ৬০ শতাংশ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর। ইউএনবি



আরো সংবাদ