২৭ নভেম্বর ২০২০

ফেসবুক ও টুইটারকে দুটি সুবিধা বন্ধ রাখতে খোলা চিঠি

ফেসবুক ও টুইটারকে দুটি সুবিধা বন্ধ রাখতে খোলা চিঠি - সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ভুয়া তথ্যের প্রসাররোধে দ্রুত উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে মজিলা। ফেসবুক ও টুইটারের উদ্দেশ্যে লেখা খোলা চিঠিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোর দুটি সুবিধা সাময়িক বন্ধ রাখার অনুরোধ জানিয়েছে ফায়ারফক্স ব্রাউজারের নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

মার্কিন সংবাদপত্র ‘ওয়াশিংটন পোস্ট’-এ গতকাল মঙ্গলবার পৃষ্ঠাজুড়ে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে মজিলা। তাতে ৩ নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় মার্কিন নির্বাচন সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত ফেসবুকের ‘গ্রুপ রিকমেন্ডেশন’ এবং টুইটারের ‘ট্রেন্ডিং টপিকস’ নামের ফিচার দুটি বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। গত বছরগুলোতে ফেসবুকের নানা গ্রুপ থেকে ভুল তথ্য ছড়িয়েছে। তথ্যসূত্র সম্পর্কে নিশ্চিত না হয়েই সেগুলো শেয়ার করেছেন ব্যবহারকারীরা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে মজিলা জানিয়েছে, ফেসবুক জানে তাদের গ্রুপগুলো থেকে ভুয়া তথ্য ছড়ায়। আর সে কারণেই সেপ্টেম্বরে ফেসবুক ঘোষণা দিয়েছিল, করোনাভাইরাস নিয়ে ভুল তথ্যের প্রসাররোধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি এখন থেকে স্বাস্থ্যবিষয়ক গ্রুপগুলোর ‘রিকমেন্ডেশন’ বন্ধ রাখবে।

টুইটারের ট্রেন্ডিং টপিকসও একই ধরনের সমস্যার জন্য দায়ী। বিশেষজ্ঞরা কোনো তথ্য যাচাইয়ের আগেই টপিকগুলো (বিষয়) ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টে দেখা যায়। আর ফেসবুকের মতো টুইটারও জানে সমস্যাটি গুরুতর। সে কারণেই ট্রেন্ডিং টপিকসের মাধ্যমে ভুয়া তথ্য ছড়ানো বন্ধ করতে কর্মী নিয়োগ করেছে টুইটার।

উদ্যোগগুলো যথেষ্ট না বলে মনে করছে মজিলা। আর সে কারণেই অন্তত নির্বাচন পর্যন্ত সুবিধা দুটি স্থগিত রাখতে বলছে তারা। বেশ উচ্চাভিলাষী দাবি বলা যেতে পারে। এখন ফেসবুক ও টুইটার সাড়া দেবে কি না, তা-ই দেখার বিষয়।


আরো সংবাদ