২৭ অক্টোবর ২০২০

নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য বাড়ল


চলতি বছর মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কারজয়ীদের গত বছরের তুলনায় ১০ লাখ ক্রৌন বা প্রায় এক লাখ ১০ হাজার ডলার বেশি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নোবেল ফাউন্ডেশনের প্রধান লারস হেইকেনস্টেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সুইডেনের দৈনিক ডাগেন ইন্ডুস্ট্রিকে তিনি এ তথ্য দিয়েছেন। হেইকেনস্টেন বলেছেন, এ বছর থেকে নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য ফের এক কোটি ক্রৌন হচ্ছে।

ডিনামাইট আবিষ্কারক আলফ্রেড নোবেল ৩ কোটি ১০ লাখ ক্রৌন রেখে গিয়েছিলেন, আজকের বাজারে যা প্রায় ১৮০ কোটি ক্রৌনের সমান। তার রেখে যাওয়া ওই অর্থ দিয়েই ১৯০১ সাল থেকে মর্যাদাপূর্ণ এ নোবেল পুরস্কারের প্রচলন করা হয়। শত বছরেরও বেশি সময় ধরে নোবেল পুরস্কার বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয়ে এলেও সময়ে সময়ে এ পুরস্কারের অর্থমূল্য পরিবর্তিত হয়েছে।

শুরুর দিকে বিজয়ীদের দেড় লাখ ক্রৌন দেয়া হতো, পরে বাড়তে বাড়তে ১৯৮১ সালে তা ১০ লাখ ক্রৌনে দাঁড়ায়। পরের দুই দশক এ অর্থমূল্য হু হু করে বাড়ে। ২০০০ সালে প্রতিটি পুরস্কারের অর্থমূল্য দাঁড়ায় ৯০ লাখ ক্রৌনে; পরের বছর বেড়ে হয় এক কোটি ক্রৌন।

২০০৮-০৯ সালের মন্দায় নোবেল ফাউন্ডেশনের বিনিয়োগ ক্ষতিগ্রস্ত হলে পরিস্থিতি সামলাতে সুইডেনের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক প্রধান হেইকেনস্টেনকে ফাউন্ডেশনের দায়িত্বে নিয়ে আসা হয়।

তার হাত ধরেই নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য কমে যায়। ২০১২ সালে পুরস্কারটির অর্থমূল্য হয় ৮০ লাখ ক্রৌন; ২০১৭ সালে বাড়িয়ে করা হয় ৯০ লাখ ক্রৌন। এ বছর থেকে ফের এক কোটি ক্রৌন হলেও, সময়ে সময়ে পুরস্কারের অর্থমূল্য আরো বাড়বে বলে জানিয়েছেন হেইকেনস্টেইন। চলতি বছরের শেষদিকে তিনি ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে যাচ্ছেন; তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন নরওয়ের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিদান হেলগেসেন। রয়টার্স


আরো সংবাদ

এশিয়ায় বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি সবচেয়ে বেশি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাচীন হিন্দু ধর্মগ্রন্থ ‘মনুস্মৃতি’ নিষিদ্ধ করার দাবিকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত ভারতের রাজনীতি দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ফের ভাঙন, এক ঘাট বন্ধ আত্মহত্যার ১০ মাস পর জানা গেল তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়েছিল প্রাথমিক শিক্ষকদের সার্ভিসবুকে উচ্চতর ডিগ্রি যুক্ত করার ঘোষণা পাকিস্তানে রাজনৈতিক অস্থিরতার নেপথ্যে কাশ্মিরিদের ঘরে বন্দী রেখেই এবার ভারতীয়দের জমি কেনার অনুমতি দিলেন মোদি সৃষ্টিবিনাশী লেখক শিল্পীরা ২৮ অক্টোবর বাংলাদেশে যে দুর্বৃত্তায়নের যাত্রা শুরু হয়েছিল আজ জাতি তার কুফল ভোগ করছে : ডা: শফিকুর আমি একজন দুর্ভাগা লেখক জামায়াতে ইসলামীর শোক

সকল