২৮ অক্টোবর ২০২০

পিছিয়েছে জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন

পিছিয়েছে জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন - সংগৃহীত

সুষ্ঠু ও সুচারুরূপে বাস্তবায়নের জন্য এক সপ্তাহ পেছানো হয়েছে জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেই। এ ক্যাম্পেইন জন্য আগের ঘোষিত ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ অক্টোবরের পরিবর্তে আগামী ৪-১৭ অক্টোবর সময়ে উদযাপন করা হবে বলে জানিয়েছে জাতীয় পুষ্টিসেবা।

একই বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানায়, অ্যাডভোকেসি সভা, স্বেচ্ছাসেবী প্রশিক্ষণ, সাংবাদিক অরিয়েন্টেশন, প্রচার-প্রচারণা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রন্তিক পর্যায়ে পাঠানো ও প্রাপ্তি নিশ্চিতকরণ এবং ক্যাম্পেইন সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যাবলী যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য আগের ঘোষিত তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ মহামারির প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ সেবা ও কার্যক্রম পালন করা হবে বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি। এ জন্য স্বাস্থ্যকর্মী ও নির্বাচিত স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়মিত কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা এবং কোনো স্বাস্থ্যকর্মী বা স্বেচ্ছাসেবক জ্বর/সর্দি/কাশিতে আক্রান্ত হলে তার পরিবর্তে অন্যকে দায়িত্ব দিতে হবে।

ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে ইপিআই কেন্দ্র, কমিউনিটি ক্লিনিক ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে (মুখে মাস্ক পড়া, সাবান ও পানি দিয়ে ২০ সেকেন্ড ধরে ভালোভাবে বার বার দুই হাত ধৌত করা/ হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে বার বার হাত পরিষ্কার করা) শিশুদের ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়াতে হবে।

নির্ধারিত ইপিআই সিডিউল অনুযায়ী, সাধারণত প্রত্যেক ওয়ার্ডের (পুরাতন) ৮টি সাব-ব্লকে সপ্তাহে দুইদিন ইপিআই কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়ে থাকে। ওই দুইদিন ছাড়া বাকি চারদিন নির্ধারিত ইপিআই কেন্দ্রে পর্যায়ক্রমে স্বাস্থ্য সহকারী, পরিবার কল্যাণ সহকারী ও স্বেচ্ছাসেবীদের শিশুদের ভিটামিন-এ ক্যাপুসল খাওয়ানো হবে। এছাড়া কমিউনিটি ক্লিনিক ও অন্যান্য সরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

উপজেলার ক্ষেত্রে স্থানীয়ভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা স্বাস্থ্য পরিদর্শক এবং উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা পরিবার কল্যাণ পরিদর্শকের সাথে সমন্বয় করে সপ্তাহে চারদিন নির্ধারিত ইপিআই কেন্দ্রে/পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে রুটিন দায়িত্ব হিসাবে পর্যায়ক্রমে শিশুদের ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর জন্য পরিকল্পনা করতে হবে।

সিটি করপোরেশন/পৌরসভার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মেয়রের পরামর্শে স্বাস্থ্য সেক্টরে কর্মরত মেডিকেল কর্মকর্তাদের সাথে সমন্বয় করে সপ্তাহে চারদিন নির্ধারিত ইপিআই কেন্দ্রে রুটিন দায়িত্ব হিসাবে পর্যায়ক্রমে শিশুদের স্ব স্ব পৌরসভায় ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর পরকিল্পনা করবেন। কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ প্রতিরোধের স্বার্থে কেন্দ্রসমূহে সামাজিক নিরাপত্তা বিষয়ক সতর্কতা (ভিড় নিয়ন্ত্রণ ও কমপক্ষে ৩ ফুট শারিরীক দূরত্ব নিশ্চিত করা) মেনে চলার কথা বলা হয়েছে। সূত্র: ইউএনবি


আরো সংবাদ

বঙ্গবন্ধুই নারী ক্ষমতায়নের ভিত রচনা করে গেছেন : স্পিকার তাইওয়ানে চীন হামলা চালালে কী করবে যুক্তরাষ্ট্র মোদীর মন্ত্রিসভায় করোনার থাবা, আক্রান্ত স্মৃতি ইরানি! চাঁদপুরে ফুফু হত্যার অভিযোগে ভাতিজা আটক দাফনের ৩ বছর ৮ মাস পর কবর থেকে যুবকের লাশ উত্তোলন ভোমরা স্থলবন্দরে ফের আমদানি-রপ্তানি শুরু ভারতীয় নৌকা সরাচ্ছে ভারতীয় কোস্ট গার্ডের স্থল ও বিমান ইউনিট স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ২ দিন পর পলাতক স্বামীর আত্মহত্যা! ঢাকা জেলার জিপি ফকির দেলওয়ার ও সাবেক সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মোসলেম উদ্দীনের ইন্তেকাল সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যানের শরণখোলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু

সকল