২৭ অক্টোবর ২০২০

জেনে রাখুন গুগল সম্পর্কে খুঁটিনাটি

জেনে রাখুন গুগল সম্পর্কে খুঁটিনাটি - সংগৃহীত

গুগুল হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ভিজিটেড ওয়েবসাইট, অর্থাৎ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের অধিকাংশই এই ওয়েবসাইটটিতে অন্তত একবার ঘুরে গেছেন। আর শুধু ঘুরেই যাননি। যে উদ্দেশ্য নিয়ে এসেছেন তা মেটাতেও সক্ষম হয়েছে গুগল। যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছেন ব্যবহারকারীরা গুগুল থেকেই।

গুগলের শুরু
গুগল শুরু করেছিলেন দু’জন কলেজ ছাত্র। তাদের নাম ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন। তারা চেয়েছিলেন এমন একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে। যার মাধ্যমে অন্য ওয়েবপেজগুলোর একটা তুলনামূলক তালিকা করা যাবে। এর ভিত্তি হবে অন্য ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে কতজন তাদের সাথে সংযুক্ত হয়েছেন। দুই কলেজ ছাত্রের উদ্দেশ্য কিন্তু সফল।

গুগল নামের উৎপত্তি
গুগল শব্দটা উৎপত্তি 'গুগোল' (googol) থেকে। যা একটি বিশেষ সংখ্যার নাম। সংখ্যাটা হলো- ১ এর পিঠে ১০০টা শূন্য বসালে যা হয় - তাই। কেন এই নাম বেছে নিয়েছিলেন ল্যারি আর সের্গেই? তাদের ওয়েবসাইট যে বিপুল পরিমাণ উপাত্ত ঘাঁটাঘাঁটি-অনুসন্ধান করবে সেটাই এই নাম দিয়ে বোঝাতে চেয়েছিলেন তারা।

গুগল ডুডল
প্রথম গুগল ডুডল। অর্থাৎ গুগলের হোম পেজে কোন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বা দিনের স্মারক হিসেবে যে ছবি ব্যবহৃত হয়। তাতৈরি করা হয়েছিল ১৯৯৮ সালে, বার্নিং ম্যান নামের একটি উৎসব উদযাপনের জন্য। গুগলেল প্রতিষ্ঠাতারা ভেবেছিলেন এর মাধ্যমে তারা জানিয়ে দেবেন যে কেন তারা অফিসে অনুপস্থিত।

সেরা ডুডল
গুগলের সবচেয়ে স্মরণীয় ডুডলগুলোর অন্যতম হচ্ছে চাঁদে জলের অনুসন্ধান, এবং জন লেননের ৭০তম জন্মদিন উদযাপনের জন্য। জন লেননের ডুডলটি আবার ছিল প্রথম ভিডিও ডুডল।

গুগলপ্লেক্স
গুগলের হেডকোয়ার্টার পরিচিত 'গুগলপ্লেক্স' নামে এবং এটি অবস্থিত ক্যালিফোর্নিয়ার সিলিকন ভ্যালিতে। গুগলপ্লেক্সে টি-রেক্স জাতীয় ডাইনোসরের একটি বিশাল মূর্তি আছে। যার ওপর প্রায়ই অসংখ্য প্লাস্টিকের তৈরি গোলাপি ফ্ল্যামিঙ্গ বসে থাকতে দেখা যায়। বলা হয় এই ফ্ল্যামিঙ্গগুলো একরকম বার্তা দেয় কর্মচারীদের যে তারা যেন কোনওদিন গুগলকে বিলুপ্তের পথে না ঠেলে দেন। গুগল হচ্ছে প্রথম বড় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা যারা তাদের কর্মচারীদের বিনামূল্যে খাবার পরিবেশন করে। তা ছাড়া কর্মচারীরা তাদের পোষ্যদের সঙ্গে নিয়েও অফিসে আসতে পারেন।

জনপ্রিয় সার্চ
২০০১ সালে চালু করা হয় গুগল ইমেজ সার্চ। যার অনুপ্রেরণা ছিল ২০০০ সালের গ্র্যামি পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে জেনিফার লোপেজের পরা সবুজ পোশাক। এটি গুগলের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চে পরিণত হয়েছিল।

ইউটিউব
ইউটিউব গুগল পরিবারের সদস্য হয় ২০০৬ সালে। দেড়শ' কোটি ডলারেরও বেশি দামে ইউটিউবকে কিনে নেয় গুগল।এখন ইউটিউবের মাসিক ব্যবহারকারী প্রায় ২০০ কোটি। প্রতি মিনিটে ইউটিউবে আপলোড হয় ৪০০ ঘন্টার ভিডিও।

‘ব্যাকরাব’
গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন এই প্রতিষ্ঠানের প্রথম নাম দিয়েছিলেন ব্যাকরাব। যে পদ্ধতিতে একটি ওয়েবসাইট আরেকটি ওয়েবসাইটকে খুঁজে বের করে এবং সেগুলোর পুরনো লিংকের ওপর নির্ভর করে ওয়েবপেজে র‌্যাংকিং করে, তাকেই বলা হয় ব্যাকরাব।

সবুজায়ন
গুগল সবসময়েই বলে, তারা সবুজ উদ্যোগ সমর্থন করে। এরই একটি হলো ছাগলের মাধ্যমে লনের ঘাসকাটা। ক্যালিফোর্নিয়ায় গুগল সদর দপ্তরের লনের ঘাসগুলো নিয়মিতভাবে কেটেছেটে ঠিকঠাক রাখতে হয়। সুতরাং কখনও যদি সেখানে যান, দেখতে পাবেন প্রায় ২০০ ছাগল সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে আর ঘাস খেয়ে লনের ঘাস ঠিকঠাক রাখছে। সূত্র: এই সময়


আরো সংবাদ