০৬ জুন ২০২০

আইজিপি হচ্ছেন র‌্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ

নতুন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) পাচ্ছে বাংলাদেশ। র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. বেনজীর আহমেদ হচ্ছেন পুলিশের পরবর্তী মহাপরিদর্শক (আইজিপি)। তিনি বর্তমান আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর স্থলাভিষিক্ত হবেন। র‌্যাবের নতুন মহাপরিচালক (ডিজি) হচ্ছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) প্রধান চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন। এ দিকে বর্তমান আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীকে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ শ্রমবাজার হিসেবে পরিচিত একটি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এই তিন শীর্ষ কর্মকর্তার নতুন নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানোর পর প্রধানমন্ত্রী তা অনুমোদন দিয়েছেন বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, দুই-এক দিনের মধ্যেই এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে।

জানা গেছে, বর্তমান আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী চাকরির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৪ এপ্রিল। ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি আইজিপি হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করেছিলেন জাবেদ পাটোয়ারী। আগে থেকেই সৎ, মেধাবী ও পেশাদার কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিতি ছিল তার। তিনি আইজিপি হওয়ার পর থেকে পুলিশের দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেন। তার সাহসী নেতৃত্বে পুলিশের দুর্নীতি অনেকটাই কমে এসেছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। এ ছাড়া পুলিশের বদলি-নিয়োগসহ নানা ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হন তিনি।

আইজিপি হওয়ার আগে ড. জাবেদ পাটোয়ারী পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান ছিলেন। এ ছাড়া পুলিশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ১৯৮৬ সালে বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে প্রথম স্থান অধিকার করে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে চাকরিজীবন শুরু করেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে।

অপরদিকে মেধাবী, সৎ ও চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে বেনজীর আহমেদের পরিচিতি রয়েছে। সপ্তম বিসিএস পুলিশ ক্যাডারের কর্মকর্তা বেনজীর আহমেদ ১৯৮৮ সালে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। বেনজীর আহমেদের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জে। ২০১৫ সাল থেকে র‌্যাবের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বেনজীর আহমেদ। তিনি হবেন বাংলাদেশ পুলিশের ৩০তম আইজি। র‌্যাবের ডিজির দায়িত্ব পালনের আগে প্রায় সাড়ে চার বছর ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি জাতিসঙ্ঘের শান্তিরক্ষা বিভাগে চিফ অব মিশন ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট সার্ভিসেস হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। কর্মদক্ষতায় তিনবার জাতিসঙ্ঘ শান্তিপদক অর্জন করেন। এ ছাড়া তিনি পুলিশের পেশাগত সর্বোচ্চ পদক বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) অর্জন করেন। বেনজীর আহমেদের মতো পেশাদার ও মেধাবী কর্মকর্তা আইজিপি হলে পুলিশে ভিন্নমাত্রা যুক্ত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।


আরো সংবাদ





justin tv