০১ এপ্রিল ২০২০

করোনা মোকাবেলায় বিশ্বব্যাপী যুদ্ধবিরতির আহ্বান জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের

করোনাভাইরাসের মহামারী থেকে সঙ্ঘাতকবলিত অঞ্চলের বেসামরিক মানুষকে রক্ষায় অবিলম্বে বিশ্বজুড়ে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসঙ্ঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। তিনি বলেছেন, সারা বিশ্বে সঙ্ঘাতপীড়িত এলাকার মানুষ সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। গত সোমবার নিউ ইয়র্কে সংস্থাটির সদর দফতরে এক সংক্ষিপ্ত ভাষণে তিনি এই আহ্বান জানান। গুতেরেস বলেন, ‘এখন সশস্ত্র সঙ্ঘাতকে লকডাউনে পাঠানোর এবং আমাদের জীবন রক্ষায় সত্যিকার লড়াইয়ে মনোনিবেশের সময়।’ তিনি বলেন, ‘বন্দুকের গর্জন থামান, বোমাবর্ষণ ও বিমান হামলা বন্ধ করুন।’ আর তা করা হলে জীবন রক্ষাকারী ত্রাণ পাঠানোর পথ সুগম করবে বলে জানান তিনি।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। বিশেষজ্ঞ ও কূটনীতিকদের আশঙ্কা সঙ্ঘাতকবলিত দেশগুলোর ভঙ্গুর স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কারণে ভাইরাসটি মারাত্মক রূপ নিতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ‘হু’র প্রধান জানিয়েছেন, সারা বিশ্বে এ পর্যন্ত তিন লাখের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং প্রায় সব দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাস যাতে আরো ছড়িয়ে না পড়ে সে জন্য প্রায় সব দেশেই আক্রান্ত শহরগুলোকে কোয়ারেন্টিন করা, অবাধ চলাফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি, জরুরি অবস্থা ঘোষণা, ঘরে বসে থাকা জনগণকে খাদ্য সরবরাহ করা প্রভৃতি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এসব পদক্ষেপ নেয়া হলেও ভাইরাস রোধের জন্য সারা বিশ্বে এন্টি ব্যাকটেরিয়াল দ্রব্য, মাস্ক ও গ্লাভসের মতো জরুরি জিনিসের মারাত্মক ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়লেও ইয়েমেন, লিবিয়াসহ আরো বহু দেশে যুদ্ধ ও সঙ্ঘাত অব্যাহত রয়েছে। ইয়েমেনের বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের হামলা অব্যাহত থাকায় ইয়েমেনে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে ইয়েমেনের হাউছি নেতা মোহাম্মদ আলী আল হাউছি টুইটবার্তায় তার দেশের বিরুদ্ধে আমেরিকা, ব্রিটেন, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের আগ্রাসন বন্ধের জন্য জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের আহ্বানকে স্বাগত জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সহযোগিতার জন্য তার দেশের বিরুদ্ধে নৌ, স্থল ও আকাশ পথে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন।

এ দিকে, লিবিয়ায় যুদ্ধরত পক্ষগুলো সঙ্ঘাত অবসানের আহ্বানে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে। লিবিয়ার সব বিনোদন কেন্দ্র, পর্যটন স্থান, খেলাধুলা প্রভৃতি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মিসরসহ আরো কয়েকটি দেশ লিবিয়া থেকে তাদের সেনা সরিয়ে আনার কথা জানিয়েছে। আন্তর্জাতিক সমাজের উদ্বেগের একটি বড় কারণ হচ্ছে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়লেও ইরান ও ভেনিজুয়েলার ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে। এ নিষেধাজ্ঞার ফলে ওই দুই দেশে করোনা চিকিৎসা ব্যাহত হচ্ছে এবং এ পর্যন্ত বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। এ কারণে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবকে লেখা চিঠিতে করোনাভাইরাস মোকাবেলার স্বার্থে তার দেশের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

খাদ্য ও ওষুধের ওপর নিষেধাজ্ঞা নেই বলে মার্কিন কর্মকর্তারা দাবি করলেও বাস্তবতা হচ্ছে এ ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে। দৈনিক ফিন্যান্সিয়াল টাইমস ইরানবিরোধী মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পরিণতির ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ‘এ নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরান বাইরে থেকে ওষুধসহ কোনো জরুরি পণ্যই আমদানি করতে পারছে না। ফলে ইরানের জনগণের চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে’।

এ অবস্থায় জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব জরুরি ভিত্তিতে বিশ্বব্যাপী সঙ্ঘাতের অবসান ও করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সবার সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এর আগেও তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সবার সহযোগিতা না থাকলে লাখ লাখ মানুষের জীবন বিপন্ন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। সূত্র : আনাদোলু, এবিসি নিউজ ও পার্সটুডে


আরো সংবাদ

পহেলা বৈশাখের সব অনুষ্ঠান স্থগিত পাকুন্দিয়ায় ৩ শ' পরিবারের পাশে যুবলীগ নেতা সুমন সঙ্কটকালে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চাচ্ছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের কোভিড-১৯ : ভুল তথ্য ঠেকাতে ভাইবার ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষ উদ্যোগ রোহিঙ্গাসহ ৩ প্রকল্পে ৩৫ কোটি ডলার অনুদান বিশ্বব্যাংকের জনগণের সেবায় এগিয়ে আসুন : চিকিৎসকদের প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রী খাবারের সন্ধানে রাস্তায় কর্মহীনরা, প্রশাসনের পাশাপাশি এগিয়ে আসছেন বিত্তবানেরা কুমিল্লায় ৬৫৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছেন পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় সংকটে বিশ্ব : জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব লকডাউন করার কারণেই উহানে করোনা সংক্রমণ ব্যাপকভাবে কমেছে : গবেষণা

সকল