০৯ এপ্রিল ২০২০

২ লাখ দক্ষ চালক তৈরি করবে সরকার

২ লাখ দক্ষ চালক তৈরি করবে সরকার - ছবি : নয়া দিগন্ত

বেকার যুবকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ গাড়ি চালক তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। অর্থমন্ত্রণালয়ের স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র (বিএমইটি) অধিনস্থ ৬১টি টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের (টিটিসি) মাধ্যমে ২০২৩ সালের মধ্যে ২ লাখ দক্ষ চালক তৈরি করা হবে। এর মধ্যে চলতি ২০২০ সালের মধ্যেই ৫২ হাজার চালক তৈরি করা হবে। এদের বড় অংশ বিদেশে কর্মসংস্থান হবে মনে করেন স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের নির্বাহী পরিচালক মো. জাহিদুল হক।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলে বিএমইটি ভবনে মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণের জন্য জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র (বিএমইটি) অধিনস্থ ৬১টি টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারকে (টিটিসি) ‘প্রশিক্ষণ গাড়ি ও সিমুলেটর হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ ৬১টি টিটিসির অধ্যক্ষের হাতে প্রশিক্ষণ গাড়ির চাবি হস্তান্তর করেন। বিএমইটির মহাপরিচালক মো. শামছুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যাণ সচিব মো. সেলিম রেজা বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। এসময় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়, বিএমইটি ও স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের কর্মকর্তারাসহ টিটিসির অধ্যক্ষবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ টিটিসির অধ্যক্ষদের উদ্দেশে বলেন, প্রশিক্ষণের জন্য আপনাদের হাতে যে গাড়ি হস্তান্তর করা হলো তার মেইনটেনেন্স যথাযথভাবে করতে হবে। যারা প্রশিক্ষণ নেবেন তাদের দক্ষ চালক হিসেবে তৈরির পাশাপাশি গাড়িগুলো যাতে কমপক্ষে ৫ বছর সচল থাকে তা নিশ্চিতে আপনাদেরই ব্যবস্থা নিতে হবে। আপনাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষ চালক হিসেবে যাতে বিদেশে গিয়ে ভাল বেতন চাকরি করতে পারেন, দেশে রেমিট্যান্স পাঠাতে পারেন সেদিকে আপনাদের নজর দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, এই মুহূর্তে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ড্রাইভারের বেশি চাহিদা। একটা কথা মনে রাখতে হবে, এসব কিন্তু লেফট ড্রাইভিং কান্ট্রি। তাই যারা প্রশিক্ষণ নেবে তাদের ওই দেশের জন্য উপযোগী হিসেবেই (লেফট হ্যান্ডেড ড্রাইভিং) হিসেবেই গড়ে তুলতে হবে।

(বাংলাদেশে রাইট হ্যান্ডেড ড্রাইভিং) এখানে ট্রেনিং নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের কোনো দেশে যাওয়ার পর যেন তাদের ফের প্রশিক্ষণের জন্য আরো ৬ মাস নষ্ট না হয়।

ইমরান আহমদ টিটিসিগুলোতে বর্তমান বিশ্বের বাস্তবতা ও চাহিদার আলোকে নতুন নতুন ট্রেড যুক্ত করতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

প্রবাসী কল্যাণ সচিব সেলিম রেজা বলেন, বর্তমানে পৃথিবীতে দক্ষকর্মী দরকার। দক্ষকর্মী তৈরিতে টিটিসিগুলোতে এই গাড়ি সরবরাহ করা হচ্ছে। অর্থমন্ত্রণালয়ের অধিনে স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের অধিনে এডিবির টাকায় এই প্রকল্প। সুতরাং টিটিসির অধ্যক্ষদের বলবো, আপনারা দক্ষ চালক তৈরিতে সচেষ্ট থাকবেন। মান নিয়ে যেন কোনো কথা না হয়। শুধু চালক নয়, অন্যান্য ট্রেড বা কাজের জন্যও দক্ষকর্মী তৈরি করতে হবে। পাশাপাশি ইংরেজি ও আরবী ভাষা প্রশিক্ষণকেও গুরত্ব দিতে হবে। কারণ ভাষাটা এখন গুরুত্বপূর্ণ।

স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের নির্বাহী পরিচালক মো. জাহিদুল হক বলেন, দেশের যুব সমাজকে দক্ষ ও যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মসংস্থান করাই এই কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য।


আরো সংবাদ

১১২টি আইসিইউ নিয়ে করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ কতটা সক্ষম? বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে করোনা উপসর্গে ৩ জনের মৃত্যু গরম পড়লে কি করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমে যাবে? সৌদি রাজ পরিবারের ১৫০ সদস্য করোনায় আক্রান্ত সাঈদীর মুক্তি চেয়ে সাতকানিয়ার শতাধিক সামাজিক সংগঠনের বিবৃতি ভারতের গোয়েন্দা ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি করল পাকিস্তান ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে নারীর শরীরে করোনা শনাক্ত নারায়ণগঞ্জ ফেরত যুবকের শরীরে করোনা, সৈয়দপুরে ২০ বাড়ি লকডাউন চীনের অভিজ্ঞতা থেকে শিখছে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী চান্দিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ১ ব্রিটেনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশী চিকিৎসকের মৃত্যু

সকল