১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ৭ মহররম ১৪৪৬
`

মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কটে ইইউ জড়িত!

- ছবি : সংগৃহীত

ইসরাইলের ওপর হামলার হুমকির পাশাপাশি ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্য দেশ সাইপ্রাসকেও সতর্ক করে দিয়েছে লেবাননভিত্তিক প্রতিরোধ সংগঠন হিজবুল্লাহ। দেশটির ওপর হামলা হলে ইইউ ও ব্রিটেনও সঙ্ঘাতে জড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গাজায় ফিলিস্তিনি মুক্তিকামী সংগঠন হামাসের সাথে যুদ্ধের মাঝে উত্তরে লেবাননের হিজবুল্লাহর সাথেও ইসরাইল পুরোদস্তুর যুদ্ধে জড়িয়ে পড়লে তার আঁচ গোটা মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। হিজবুল্লাহ প্রধানসৈয়দ হাসান নাসরুল্লাহ ইসরাইলের পাশাপাশি এই প্রথম ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশ সাইপ্রাসের ওপরও হামলার হুমকি দিয়েছেন।

তার বক্তব্য অনুযায়ী, ভূমধ্যসাগরের অন্যান্য অংশেও তার গোষ্ঠী হামলা চালাতে পারে। ইসরাইলের গোটা ভূখণ্ডসহ আশপাশের যেকোনো এলাকার ওপর পানি পথে-স্থলে-অন্তরীক্ষে সুনির্দিষ্ট হামলার হুমকি দিয়েছেন তিনি।

লেবাননের সাথে সুসম্পর্ক সত্ত্বেও সাইপ্রাস ইসরাইলকে নিজস্ব বিমানবন্দর ও সামরিক ঘাঁটি ইসরাইলকে সামরিক মহড়ার জন্য ব্যবহার করতে দেয়ায় হিজবুল্লাহর নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সেখান থেকে লেবাননের ওপর হামলা চালানো হলে সাইপ্রাসের সরকারও যুদ্ধের অংশ হয়ে উঠবে বলে হাসান নাসরুল্লাহ হুঁশিয়ারি দেন।

সাইপ্রাসের প্রেসিডেন্ট নিকোস ক্রিস্টোদুলিদেস অবশ্য এমন অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করেন, যে তার দেশ কোনো সঙ্কটেই কোনো পক্ষকে সমর্থন করছে না। তিনি বরং যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজায় ত্রাণ পৌঁছানোর ক্ষেত্রে নিজের দেশের ইতিবাচক ভূমিকা তুলে ধরেন।

তার মতে, আরব দেশগুলি ও আন্তর্জাতিক সমাজ সেই ভূমিকাকে স্বীকৃতি দিচ্ছে। সাইপ্রাস প্রকাশ্যে সরাসরি ইসরাইলি সেনাবাহিনীকে কোনো সহায়তা দেয়নি। তবে সাইপ্রাসের বিশাল আকাশসীমার মধ্যে ইসরাইলি বিমানবাহিনী মাঝেমধ্যে মহড়া চালানোর অনুমতি পেয়েছে। সে দেশে ব্রিটেনের সামরিক ঘাঁটি থেকে অতীতে সিরিয়া ও সম্প্রতি ইয়েমেনে হামলা চালানো হয়েছে। সাবেক ঔপনিবেশিক শক্তি হিসেবে ব্রিটেনের দু’টি সামরিক ঘাঁটি সে দেশে সক্রিয় রয়েছে।

ইরান-সমর্থিত হিজবুল্লাহ, ইয়েমেনের হাউছি গোষ্ঠী ও সিরিয়ার বাশার আল আসাদের সরকার ইসরাইলের সাথে আরো বড় সঙ্ঘাতে জড়িয়ে পড়লে গোটা মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে অস্থিরতা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

জাতিসঙ্ঘ ও মার্কিন প্রশাসন উত্তেজনা কমানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে বুধবার মার্কিন বিমানবাহিনী ইয়েমেনে হাউছি-নিয়ন্ত্রিত এলাকার ওপর হামলা চালিয়েছে। সেখান থেকে লোহিত সাগরে জাহাজের ওওপর হামলা চালানো হচ্ছিল বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

বুধবার ইসরাইলি বিমানবাহিনী লেবাননের দক্ষিণে হিজবুল্লাহর কয়েকটি স্থাপনার ওপর হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছে। হিজবুল্লাহও ইসরাইলের উত্তরে ড্রোন হামলা চালিয়েছে। এক দিন তারা ইসরাইলের উত্তরে নিজস্ব ড্রোন থেকে তোলা ভিডিও প্রকাশ করে হাইফা শহর ও বন্দরে সামরিক স্থাপনার ওপর হামলার হুমকি দিয়েছিল। তবে সেই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।
সূত্র : ডয়চে ভেলে


আরো সংবাদ



premium cement