১৫ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ৮ মহররম ১৪৪৬
`

হাইপারসনিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করতে যাচ্ছে ইরান

হাইপারসনিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করতে যাচ্ছে ইরান - ছবি : সংগৃহীত

ইরান খুব শিগগিরই নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি একটি হাইপারসনিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করবে বলে জানিয়েছে ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি।

বাহিনীর অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির-আলী হাজিজাদে সোমবার তেহরানে বলেছেন, হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রটির সফল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে এবং অচিরেই এটির মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

তিনি বলেন, ক্ষেপণাস্ত্রটি যেকোনো ধরনের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেদ করে শত্রুর ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় আঘাত হানতে সক্ষম। এই ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণকে তিনি দেশের নিরাপত্তা রক্ষায় একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ অর্জন’ বলে মন্তব্য করেন।

হাজিজাদে বলেন, অতি উচ্চ গতিসম্পন্ন হাইপরসনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি ভূপৃষ্ঠের বায়ুমণ্ডলের ভেতর দিয়ে চলার পাশাপাশি এর বাইরে দিয়েও চলার সক্ষমতা রাখে।

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র বায়ুমণ্ডল দিয়ে সাধারণত শব্দের চেয়ে পাঁচগুণ গতিতে চলতে পারে। ফলে কোনো আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পক্ষে এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্ত করা সম্ভব হয় না।

এর আগে জেনারেল হাজিজাদে গত বছরের নভেম্বরে সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের খবর দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ক্ষেপণাস্ত্রটি শত্রুর আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেদ করে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

এছাড়া, ইরান গত মঙ্গলবার মধ্যম-পাল্লার একটি ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালায়। খোররামশাহর শ্রেণির ক্ষেপণাস্ত্রটির নাম দেয়া হয়েছে খাইবার এবং এটি ১ হাজার ৫০০ কেজি ওয়ারহেড বহন করে ২ হাজার কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।


আরো সংবাদ



premium cement