০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

ড্রোন উড়ানো কেন নিষিদ্ধ করতে বাধ্য হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত

ড্রোন উড়ানো কেন নিষিদ্ধ করতে বাধ্য হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত - ছবি : সংগৃহীত

ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধাদের ড্রোন হামলার ভয়ে নিজ ভূমিতে যেকোনো ধরনের ড্রোন চালানো নিষিদ্ধ করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এ অবস্থায় কুয়েত সরকার আরব আমিরাত সফররত নিজ দেশের নাগরিকদের দূর নিয়ন্ত্রিত পাইলটবিহীন বিমান বা ড্রোন ব্যবহার করার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে।

আবু ধাবির কুয়েত দূতাবাস আরব আমিরাত সফরকারী কুয়েতি নাগরিকদেরকে যেকোনো ধরনের ড্রোন সাথে রাখার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, সাথে ড্রোন থাকলে আরব আমিরাতে কুয়েতি নাগরিকদের আইনি জটিলতায় পড়তে হবে।

ইয়েমেনের ওপর সৌদি আগ্রাসনে সহযোগিতা করার কারণে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত ইয়েমেনের সেনাবাহিনী। ওই বাহিনী এ পর্যন্ত বেশ কয়েকবার আরব আমিরাতে ড্রোন পাঠিয়ে হামলা চালিয়েছে।

ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলনের পলিটব্যুরো সদস্য মোহাম্মাদ আল-বুখাইতি এ সম্পর্কে বলেছেন, সৌদি আরব ও আরব আমিরাতের মধ্যে এমন একটি সমঝোতা হয়েছে যে সৌদি আরব ইয়েমেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোকে আমিরাতের হাতে তুলে দেবে এবং এর বিনিময়ে আমিরাত ইয়েমেনে তার সমরশক্তি দিয়ে রিয়াদকে সহযোগিতা করবে।

বুখাইতি সংযুক্ত আরব আমিরাতকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, দেশটি যেন উত্তেজনা বাড়িয়ে দেয়ার যেকোনো পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকে। কারণ, সেক্ষেত্রে আরব আমিরাতের গভীর অভ্যন্তরে হামলা চালাবে ইয়েমেন।

সূত্র : পার্সটুডে


আরো সংবাদ


premium cement