১৯ আগস্ট ২০২২, sdsjdb sj, shaban
`

তিউনিসিয়ায় ঘানুশির ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ

রশিদ ঘানুশি - ছবি : রয়টার্স

তিউনিসিয়া পার্লামেন্টের সাবেক স্পিকার এবং ভেঙে দেয়া সংসদে বৃহৎ দল আননাহদা’র প্রধান রশিদ ঘানুশির ব্যাংক হিসাব জব্দ করার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। এ আদেশে ঘানুশি ছাড়াও প্রেসিডেন্ট কাইস সাঈদের বেশ ক’জন গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষেরও ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিউনিসিয়ার অর্থনৈতিক বিশ্লেষক কমিটি বুধবার এক বিবৃতিতে ব্যাংকগুলোকে এ কথা বলেছে যে তারা যেন সন্ত্রাসবিরোধী আদালতের বিচারকের আদেশ দ্রুততার সাথে কার্যকর করে।

বিবৃতিতে যাদের নামের তালিকা দেয়া রয়েছে তাদের মধ্যে ঘানুশি ছাড়াও আননাহদা পার্টির গুরুত্বপূর্ণ মুখ- ঘানুশির ছেলে মুয়াদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রী হামাদি জাবালি ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী রফিক আব্দেসসালাম রয়েছেন।

ঘানুশি হলেন সাবেক স্বৈরশাসক জাইন আল-আবেদিন বেন আলির পতনের পর তিউনিসিয়ায় সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা।

তার আননাহদা পার্টির (একটি মুসলিম গণতান্ত্রিক দল) সাবেক মুসলিম ব্রাদারহুডের সাথে যোগসূত্র ছিল এবং বেন আলির সময় নিষিদ্ধ ছিল। তবে গত এক দশক ধরে তিউনিসিয়ার রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে আছে।

বিবৃতিতে এ কথা পরিষ্কার করা হয়নি যে কেন তাদের ব্যাংক হিসাব জব্দের এ আদেশ দেয়া হয়েছে। তবে এ আদেশ এমন সময় দেয়া হলো, যখন দেশটির রাজনৈতিক অবস্থা গত বছর প্রেসিডেন্ট সাঈদ পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার পর সবচেয়ে জটিল অবস্থায় আছে। তার এ পার্লামেন্টে ভেঙে দেয়াকে বিরোধীরা ‘অভ্যুত্থান’ হিসেবেই চিহ্নিত করছে।

তিউনিসিয়ার একটি আদালত ইতোমধ্যে গত মাসে ঘানুশির বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। ২০১৩ সালে একটি উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের তদন্তের স্বার্থে এ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয় বলে জানিয়েছে ওই আদালত।

এদিকে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী হামাদি জাবালিকে অর্থ পাচারের অভিযোগে গত মাসে গ্রেফতার করা হয়েছিল। অবশ্য পরে তিনি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

অবশ্য আগামী ২০ জুলাই সন্ত্রাসবিরোধী আদালতে তাকে হাজির হওয়ার সময় ধার্য রয়েছে।

গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট সাঈদ সংশোধিত সংবিধানের একটি খসরা প্রকাশ করেছেন। আগামী ২৫ জুলাই তার ক্ষমতা কুক্ষিগত করার বর্ষপূর্তিতে এর ওপর গণভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

সূত্র : আলজাজিরা


আরো সংবাদ


premium cement